ঢাকা ০৭:৩৪ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১৯ এপ্রিল ২০২৪, ৬ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ঈদ সামনে রেখে তাড়াশেধূম পড়েছে চাল  গুড়া তৈরীর 

নিউজ ডেস্ক
  • আপডেট সময় : ০৮:৫০:১০ অপরাহ্ন, শনিবার, ২৪ জুন ২০২৩
  • / ৩৮৯ বার পড়া হয়েছে

রফিকুল ইসলাম, তাড়াশ (সিরাজগঞ্জ) প্রতিনিধি:

আসছে ঈদুল আজহাকে সামনে রেখে তাড়াশের বিভিন্ন রাইস মিল গুলোতে চাল থেকে গুড়া তৈরীর ধূম পড়েছে। আর ওই গুড়া তৈরীর কাজে ব্যস্ত হয়ে পড়েছেন রাইস মিল মালিকরা। রাইস মিল মালিক জানিয়েছেন, চাল থেকে গুড়া তৈরীর এ কর্মযজ্ঞ চলবে ঈদের অাগের দিন পর্যন্ত।

এক সময় গ্রাম গঞ্জে পাড়া মহল্লায় ঈদ আসলেই ঢেঁকির ধুপধাপ শব্দে শোনা যেত সকাল- বিকাল। ঢেঁকিতে তৈরি করা হতো চাল থেকে গুড়া। এমনকি কাকডাকা ভোরে ঢেঁকির শব্দে ঘুম ভাঙ্গত। ঢেঁকিতে গাঁয়ের বধূদের চাল থেকে গুড়া তৈরির সেই সময় এখন অনেকটাই স্মৃতি। প্রযুক্তির এই যুগে কাঠের ঢেঁকির স্থান দখল করেছে যন্ত্রচালিত রাইস মিল গুলো।
সরেজমিনে দেখা যায়, চলনবিল অধ্যুষিত তাড়াশ উপজেলার মাধাইনগর ইইনিয়নের সেরাজপুর গ্রামে শ্যালো চালিত রাইস মিলটি স্থাপন করেছেন আব্দুস গফুর। এ মিলে এলাকা থেকে ভিজানো চাল নিয়ে আসা লোকজন লাইনে চাল রেখে দাঁড়িয়ে আছে। আর একটার পর একটা চাল মেশিনে দিয়ে চাল থেকে গুড়া তৈরী করা হচ্ছে।

প্রতি বছরই ওই মিলে ঈদুল আজহা উপলক্ষে চাল থেকে গুড়া তৈরি করে থাকেন স্থানীয়রা। ঈদের এক সপ্তাহ আগে থেকে এলাকার লোকজন সকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত চালের গুড়া তৈরী করে থাকেন তাঁরা। তাই এই কয়দিন চাল থেকে গুড়া তৈরির কাজে ব্যস্ত থাকে মিল মালিকরা এমনটাই বললেন চাল থেকে গুড়া তৈরী করতে আসা ওয়াশীন গ্রামের বাসিন্দা আরিফুর রহমান।

স্থানীয় বাসিন্দা অাবু তালেব, মাসুদ রানা বলেন, বাড়ি থেকে চাল ভিজিয়ে এনে লাইন ধরেছি চাল গুঁড়া করার জন্য। এক কেজি চাল গুড়া করতে মিলারকে দিতে হচ্ছে ৬ টাকা। তাছাড়া ঢেঁকির চেয়ে মেশিনে চাল গুঁড়া করতে কম সময় লাগে। মূলত: বাড়িতে ঢেঁকি না থাকায় আমরা চালের গুড়া তৈরির জন্য চাল রাইস মিলে এনেছি।
রাইস মিল মালিক আব্দুস গফুর বলেন, এলাকার মানুষের সুবিধার জন্য ধান ভাঙ্গানের পাশাপাশি ঈদ উপলক্ষে চাল থেকে গুড়া তৈরী করা হয়। এতে এলাকার মানুষ বেশ উপকৃত হয়। তবে সারা বছরের চেয়ে ঈদ উপলক্ষে চালের গুড়া বেশি তৈরি করা হয়ে থাকে ।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

ঈদ সামনে রেখে তাড়াশেধূম পড়েছে চাল  গুড়া তৈরীর 

আপডেট সময় : ০৮:৫০:১০ অপরাহ্ন, শনিবার, ২৪ জুন ২০২৩

রফিকুল ইসলাম, তাড়াশ (সিরাজগঞ্জ) প্রতিনিধি:

আসছে ঈদুল আজহাকে সামনে রেখে তাড়াশের বিভিন্ন রাইস মিল গুলোতে চাল থেকে গুড়া তৈরীর ধূম পড়েছে। আর ওই গুড়া তৈরীর কাজে ব্যস্ত হয়ে পড়েছেন রাইস মিল মালিকরা। রাইস মিল মালিক জানিয়েছেন, চাল থেকে গুড়া তৈরীর এ কর্মযজ্ঞ চলবে ঈদের অাগের দিন পর্যন্ত।

এক সময় গ্রাম গঞ্জে পাড়া মহল্লায় ঈদ আসলেই ঢেঁকির ধুপধাপ শব্দে শোনা যেত সকাল- বিকাল। ঢেঁকিতে তৈরি করা হতো চাল থেকে গুড়া। এমনকি কাকডাকা ভোরে ঢেঁকির শব্দে ঘুম ভাঙ্গত। ঢেঁকিতে গাঁয়ের বধূদের চাল থেকে গুড়া তৈরির সেই সময় এখন অনেকটাই স্মৃতি। প্রযুক্তির এই যুগে কাঠের ঢেঁকির স্থান দখল করেছে যন্ত্রচালিত রাইস মিল গুলো।
সরেজমিনে দেখা যায়, চলনবিল অধ্যুষিত তাড়াশ উপজেলার মাধাইনগর ইইনিয়নের সেরাজপুর গ্রামে শ্যালো চালিত রাইস মিলটি স্থাপন করেছেন আব্দুস গফুর। এ মিলে এলাকা থেকে ভিজানো চাল নিয়ে আসা লোকজন লাইনে চাল রেখে দাঁড়িয়ে আছে। আর একটার পর একটা চাল মেশিনে দিয়ে চাল থেকে গুড়া তৈরী করা হচ্ছে।

প্রতি বছরই ওই মিলে ঈদুল আজহা উপলক্ষে চাল থেকে গুড়া তৈরি করে থাকেন স্থানীয়রা। ঈদের এক সপ্তাহ আগে থেকে এলাকার লোকজন সকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত চালের গুড়া তৈরী করে থাকেন তাঁরা। তাই এই কয়দিন চাল থেকে গুড়া তৈরির কাজে ব্যস্ত থাকে মিল মালিকরা এমনটাই বললেন চাল থেকে গুড়া তৈরী করতে আসা ওয়াশীন গ্রামের বাসিন্দা আরিফুর রহমান।

স্থানীয় বাসিন্দা অাবু তালেব, মাসুদ রানা বলেন, বাড়ি থেকে চাল ভিজিয়ে এনে লাইন ধরেছি চাল গুঁড়া করার জন্য। এক কেজি চাল গুড়া করতে মিলারকে দিতে হচ্ছে ৬ টাকা। তাছাড়া ঢেঁকির চেয়ে মেশিনে চাল গুঁড়া করতে কম সময় লাগে। মূলত: বাড়িতে ঢেঁকি না থাকায় আমরা চালের গুড়া তৈরির জন্য চাল রাইস মিলে এনেছি।
রাইস মিল মালিক আব্দুস গফুর বলেন, এলাকার মানুষের সুবিধার জন্য ধান ভাঙ্গানের পাশাপাশি ঈদ উপলক্ষে চাল থেকে গুড়া তৈরী করা হয়। এতে এলাকার মানুষ বেশ উপকৃত হয়। তবে সারা বছরের চেয়ে ঈদ উপলক্ষে চালের গুড়া বেশি তৈরি করা হয়ে থাকে ।