ঢাকা ০৩:৪৫ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ২২ জুন ২০২৪, ৭ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

গণহত্যা বন্ধ না হলে বন্দিবিনিময় নিয়ে আলোচনা নয় : হামাস

নিউজ ডেস্ক
  • আপডেট সময় : ১১:১২:২১ অপরাহ্ন, বুধবার, ২০ ডিসেম্বর ২০২৩
  • / ৩৪৫ বার পড়া হয়েছে

গণহত্যা বন্ধ না হলে দখলদার ইসরায়েলের সঙ্গে বন্দিবিনিময় নিয়ে কোনো আলোচনা করবে না ফিলিস্তিনের স্বাধীনতাকামী সংগঠন হামাস।

মঙ্গলবার (১৯ ডিসেম্বর) কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আলজাজিরার এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়েছে।হামাসের জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তা বাসিম নায়েম জানিয়েছেন, যুদ্ধ বন্ধের যেকোনো উদ্যোগে ইসরায়েলের সঙ্গে আলোচনা করতে তারা রাজি। কিন্তু ইসরায়েলি বাহিনীর চলমান গণহত্যার মধ্যে হামাস বন্দিবিনিময় নিয়ে কোনো আলোচনায় বসবে না।

তিনি বলেন, আমাদের নাগরিকদের ওপর আগ্রাসন বন্ধ, মানবিক সহায়তা প্রদানে অবদান রাখতে পারে এমন আলোচনায় আমরা রাজি।

এদিকে ইসরায়েলের প্রেসিডেন্ট আইজ্যাক হারজগ বলেছেন, তার দেশ জিম্মীদের মুক্তির জন্য আরেকটি মানবিক বিরতি ও অতিরিক্ত মানবিক সহায়তার জন্য প্রস্তুত।

ইসরায়েলের হামলায় গাজায় এখন পর্যন্ত ১৯ হাজার ৬৬৭ জন ফিলিস্তিনি নিহত হয়েছেন। এ ছাড়া আহতের সংখ্যা ৫২ হাজার ছাড়িয়েছে। দিন দিন গাজার অবস্থা আরও খারাপ হচ্ছে। সেখানে খাবার, পানি ও নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিসের জন্য তীব্র হাহাকার চলছে।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

গণহত্যা বন্ধ না হলে বন্দিবিনিময় নিয়ে আলোচনা নয় : হামাস

আপডেট সময় : ১১:১২:২১ অপরাহ্ন, বুধবার, ২০ ডিসেম্বর ২০২৩

গণহত্যা বন্ধ না হলে দখলদার ইসরায়েলের সঙ্গে বন্দিবিনিময় নিয়ে কোনো আলোচনা করবে না ফিলিস্তিনের স্বাধীনতাকামী সংগঠন হামাস।

মঙ্গলবার (১৯ ডিসেম্বর) কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আলজাজিরার এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়েছে।হামাসের জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তা বাসিম নায়েম জানিয়েছেন, যুদ্ধ বন্ধের যেকোনো উদ্যোগে ইসরায়েলের সঙ্গে আলোচনা করতে তারা রাজি। কিন্তু ইসরায়েলি বাহিনীর চলমান গণহত্যার মধ্যে হামাস বন্দিবিনিময় নিয়ে কোনো আলোচনায় বসবে না।

তিনি বলেন, আমাদের নাগরিকদের ওপর আগ্রাসন বন্ধ, মানবিক সহায়তা প্রদানে অবদান রাখতে পারে এমন আলোচনায় আমরা রাজি।

এদিকে ইসরায়েলের প্রেসিডেন্ট আইজ্যাক হারজগ বলেছেন, তার দেশ জিম্মীদের মুক্তির জন্য আরেকটি মানবিক বিরতি ও অতিরিক্ত মানবিক সহায়তার জন্য প্রস্তুত।

ইসরায়েলের হামলায় গাজায় এখন পর্যন্ত ১৯ হাজার ৬৬৭ জন ফিলিস্তিনি নিহত হয়েছেন। এ ছাড়া আহতের সংখ্যা ৫২ হাজার ছাড়িয়েছে। দিন দিন গাজার অবস্থা আরও খারাপ হচ্ছে। সেখানে খাবার, পানি ও নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিসের জন্য তীব্র হাহাকার চলছে।