ঢাকা ১০:১৭ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৮ এপ্রিল ২০২৪, ৫ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

চট্টগ্রামে প্রথম দিনে ক্যাচ মিসের মাশুল গুনলো টাইগাররা

স্পোর্টস ডেস্ক
  • আপডেট সময় : ০৬:৫১:০৫ অপরাহ্ন, শনিবার, ৩০ মার্চ ২০২৪
  • / ৩১৬ বার পড়া হয়েছে

সিলেট টেস্টে বড় ব্যবধানে হারের পর সিরিজ বাঁচানোর লক্ষ্য নিয়ে মাঠে নেমেছে বাংলাদেশ। এই ম্যাচেও ব্যাট হাতে নিজেদের দক্ষতার প্রমাণ দিয়েছে লঙ্কান ব্যাটাররা। চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে আগে ব্যাট করতে নেমে চার উইকেটে ৩১৪ রান তুলে প্রথম দিন শেষ করেছে সফরকারীরা।

শনিবার (৩০ মার্চ) টস জিতে আগে ব্যাট করার সিদ্ধান্ত নেয় লঙ্কানরা। ব্যাট করতে নেমে দুর্দান্ত সূচনাও পায় সফরকারীরা। চট্টগ্রামের ব্যাটিং সহায়ক উইকেটে বাংলাদেশকে চেপে ধরে লঙ্কানরা। দুই ওপেনারের দায়িত্বশীল ব্যাটিংয়ে ২৭ ওভারে ৮৮ রান তুলে প্রথম সেশন শেষ করে সফরকারীরা।

অন্যদিকে উইকেট থেকে তেমন কোনো সহায়তা পাচ্ছেন না টাইগার বোলাররা। এর মধ্যেই তিনটি ক্যাচ মিস করে বসে টাইগাররা। যার মাশুল গুনতে হয়েছে মিরাজ-সাকিবদের।ক্যাচ মিসের ফায়দা তুলে নিয়ে ঠিকই রানের চাকা সচল রাখেন লঙ্কান দুই ওপেনার। দলীয় ৮৮ রানের সংগ্রহের পথে ইনিংসের ২৩তম ওভারেই ক্যারিয়ারের দ্বিতীয় পঞ্চাশ তুলে নেন মাদুশকা। ৮০ বলে ৬ চারে এই মাইলফলক স্পর্শ করেন এই ওপেনার।

হতাশার এক সেশন কাটিয়ে মধ্যাহ্ন-বিরতিতে গিয়েছিল বাংলাদেশ। এরপর মাঠে ফিরেই বহুল প্রত্যাশিত উইকেটের দেখা পায় শান্ত বাহিনী। ২৯তম ওভারে রান আউট হন মাদুশকা।

মিরাজের বল কাভারে খেলেছিলেন করুনারত্নে। দুই রান নিতে দ্রুত প্রান্ত বদল করতে চেয়েছিলেন মাদুশকা। তাকে ফেরত পাঠান করুনারত্নে। তবে হাসানের দুর্দান্ত থ্রোয়ে উইকেট ভেঙে দেন উইকেটকিপার লিটন দাস। রান-আউট করে ৫৭ রানে থামালেন মাদুশকাকে।

এরপর কুশল মেন্ডিসকে সঙ্গে নিয়ে ক্যারিয়ারের ৩৭তম ফিফটি তুলে নেন করুনারত্নে। ব্যাট চালাতে থাকেন মেন্ডিসও। ৫৪তম ওভারে ফিফটির দেখা পান এই ডান হাতি ব্যাটার। দুজনের ব্যাটে ভর করে দলীয় দুইশ রানের কোটার পার করে লঙ্কানরা।

মেন্ডিসের ফিফটির পর সেঞ্চুরির আক্ষেপ নিয়ে মাঠ ছাড়ে করুনারত্নে। অভিষিক্ত হাসানের প্রথম শিকার হন এই লঙ্কান ব্যাটার। অপর প্রান্ত থেকে সেঞ্চুরির পথে এগোতে থাকেন মেন্ডিস। কিন্তু বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার তার পথে কাঁটা হয়ে দাঁড়ায়। ৯৩ রান করে সাকিবের প্রথম শিকার হন তিনি।

৭১ বলে ২৩ রান করে হাসানের দ্বিতীয় শিকার হন অ্যাঞ্জেলো ম্যাথিউস। দলীয় ২৮৯ রানে চার উইকেট হারায় সফরকারীরা। এরপর লঙ্কান শিবিরে হাল ধরেন দিনেশ চান্দিমাল এবং ধানাঞ্জায়া ডি সিলভা। দুজনের ব্যাটে ভর করে চার উইকেট হারিয়ে ৩১৪ রান তুলে দিন শেষ করেছে শ্রীলঙ্কা।

দিনেশ চান্দিমাল ৫৮ বলে ৩৪ রান করে এবং ২৭ বলে ১৫ রান করে অপরাজিত রয়েছেন লঙ্কান অধিনায়ক ডি সিলভা।

বাংলাদেশের হয়ে হাসান মাহমুদ দুটি এবং সাকিব আল হাসান একটি করে উইকেট নেন।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

চট্টগ্রামে প্রথম দিনে ক্যাচ মিসের মাশুল গুনলো টাইগাররা

আপডেট সময় : ০৬:৫১:০৫ অপরাহ্ন, শনিবার, ৩০ মার্চ ২০২৪

সিলেট টেস্টে বড় ব্যবধানে হারের পর সিরিজ বাঁচানোর লক্ষ্য নিয়ে মাঠে নেমেছে বাংলাদেশ। এই ম্যাচেও ব্যাট হাতে নিজেদের দক্ষতার প্রমাণ দিয়েছে লঙ্কান ব্যাটাররা। চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে আগে ব্যাট করতে নেমে চার উইকেটে ৩১৪ রান তুলে প্রথম দিন শেষ করেছে সফরকারীরা।

শনিবার (৩০ মার্চ) টস জিতে আগে ব্যাট করার সিদ্ধান্ত নেয় লঙ্কানরা। ব্যাট করতে নেমে দুর্দান্ত সূচনাও পায় সফরকারীরা। চট্টগ্রামের ব্যাটিং সহায়ক উইকেটে বাংলাদেশকে চেপে ধরে লঙ্কানরা। দুই ওপেনারের দায়িত্বশীল ব্যাটিংয়ে ২৭ ওভারে ৮৮ রান তুলে প্রথম সেশন শেষ করে সফরকারীরা।

অন্যদিকে উইকেট থেকে তেমন কোনো সহায়তা পাচ্ছেন না টাইগার বোলাররা। এর মধ্যেই তিনটি ক্যাচ মিস করে বসে টাইগাররা। যার মাশুল গুনতে হয়েছে মিরাজ-সাকিবদের।ক্যাচ মিসের ফায়দা তুলে নিয়ে ঠিকই রানের চাকা সচল রাখেন লঙ্কান দুই ওপেনার। দলীয় ৮৮ রানের সংগ্রহের পথে ইনিংসের ২৩তম ওভারেই ক্যারিয়ারের দ্বিতীয় পঞ্চাশ তুলে নেন মাদুশকা। ৮০ বলে ৬ চারে এই মাইলফলক স্পর্শ করেন এই ওপেনার।

হতাশার এক সেশন কাটিয়ে মধ্যাহ্ন-বিরতিতে গিয়েছিল বাংলাদেশ। এরপর মাঠে ফিরেই বহুল প্রত্যাশিত উইকেটের দেখা পায় শান্ত বাহিনী। ২৯তম ওভারে রান আউট হন মাদুশকা।

মিরাজের বল কাভারে খেলেছিলেন করুনারত্নে। দুই রান নিতে দ্রুত প্রান্ত বদল করতে চেয়েছিলেন মাদুশকা। তাকে ফেরত পাঠান করুনারত্নে। তবে হাসানের দুর্দান্ত থ্রোয়ে উইকেট ভেঙে দেন উইকেটকিপার লিটন দাস। রান-আউট করে ৫৭ রানে থামালেন মাদুশকাকে।

এরপর কুশল মেন্ডিসকে সঙ্গে নিয়ে ক্যারিয়ারের ৩৭তম ফিফটি তুলে নেন করুনারত্নে। ব্যাট চালাতে থাকেন মেন্ডিসও। ৫৪তম ওভারে ফিফটির দেখা পান এই ডান হাতি ব্যাটার। দুজনের ব্যাটে ভর করে দলীয় দুইশ রানের কোটার পার করে লঙ্কানরা।

মেন্ডিসের ফিফটির পর সেঞ্চুরির আক্ষেপ নিয়ে মাঠ ছাড়ে করুনারত্নে। অভিষিক্ত হাসানের প্রথম শিকার হন এই লঙ্কান ব্যাটার। অপর প্রান্ত থেকে সেঞ্চুরির পথে এগোতে থাকেন মেন্ডিস। কিন্তু বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার তার পথে কাঁটা হয়ে দাঁড়ায়। ৯৩ রান করে সাকিবের প্রথম শিকার হন তিনি।

৭১ বলে ২৩ রান করে হাসানের দ্বিতীয় শিকার হন অ্যাঞ্জেলো ম্যাথিউস। দলীয় ২৮৯ রানে চার উইকেট হারায় সফরকারীরা। এরপর লঙ্কান শিবিরে হাল ধরেন দিনেশ চান্দিমাল এবং ধানাঞ্জায়া ডি সিলভা। দুজনের ব্যাটে ভর করে চার উইকেট হারিয়ে ৩১৪ রান তুলে দিন শেষ করেছে শ্রীলঙ্কা।

দিনেশ চান্দিমাল ৫৮ বলে ৩৪ রান করে এবং ২৭ বলে ১৫ রান করে অপরাজিত রয়েছেন লঙ্কান অধিনায়ক ডি সিলভা।

বাংলাদেশের হয়ে হাসান মাহমুদ দুটি এবং সাকিব আল হাসান একটি করে উইকেট নেন।