ঢাকা ০৪:১৮ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ২৩ জুন ২০২৪, ৮ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

জাল স্বাক্ষর করে একাউন্ট খুলে কোটি টাকা আত্মসাতের অভিযোগ ব্যাংক কর্মকর্তার বিরুদ্ধে

নিউজ ডেস্ক
  • আপডেট সময় : ০৯:১৫:৩৯ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২৩
  • / ৪২০ বার পড়া হয়েছে

 

হাকিমপুর (হিলি) প্রতিনিধি

স্ত্রীর নামে জাল স্বাক্ষর করে একাউন্ট খুলে কোটি টাকা আত্বসাৎ করার অভিযোগে ব্যাংক কর্মকর্তা বিরুদ্ধে সংবাদ সম্মেলন করেছেন দিনাজপুরের হিলি স্থলবন্দরের মোস্তাফিজুর রহমান নামের এক ব্যবসায়ী।
মঙ্গলবার (১৯ সেপ্টেম্বর) বেলা ১১ টায় হাকিমপুর (হিলি) প্রেসক্লাবে এক সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে তিনি এ অভিযোগ করেন।
লিখিত বক্তব্যে তিনি জানান,২০১৮ সালে দিনাজপুর ইসলামী ব্যাংকের শাখা ব্যাস্থাপক শাহাজাহান নিজেই ব্যবসায়ী মোস্তাফিজুর রহমানের স্ত্রী নারগিস পারভীনের নামে স্বাক্ষর জাল করে গোপনে তার শাখায় একটি একাউন্ট খোলেন। এবং তিনটি চেকের মাধ্যমে ৯৯ লাখ টাকা উত্তোলন দেখান। এরপর তিনি অন্য শাখায় বদলি হন। পরবর্তী ওই ব্যাংকের শাখা ব্যবস্থাপক রফিকুল ইসলামের সময়ে তিনি অবগত হন যে তার স্ত্রী ওই ব্যাংক থেকে ৯৯ লাখ টাকা লোন নিয়েছেন। বিষয়টি জানতে পেরে শাখা ব্যবস্থাপক রফিকুল ইসলামের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি ওই লোনের বিপরীতে ও এলসি ব্যবসা করার জন্য একটি একাউন্ট খুলতে বলেন। তিনি সরল মনে একাউন্ট খোলেন। এর এক সপ্তাহ পরে ব্যাংক কর্মকর্তারাই তার স্বাক্ষর জাল করে দিনাজপুর আদালতে চেক জালিয়াতির একটি মামলা দায়ের করেন। তিনি অভিযোগ করে বলেন, মামলা দায়েরের পর থেকেই ব্যাংক তাকে নানা ভাবে হয়রানি করে আসছে। তাই তিনি তদন্ত সাপেক্ষে ন্যায় বিচারের জন্য দিনাজপুর দায়রা জজ আদালতের প্রতি অনুরোধ জানান।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

জাল স্বাক্ষর করে একাউন্ট খুলে কোটি টাকা আত্মসাতের অভিযোগ ব্যাংক কর্মকর্তার বিরুদ্ধে

আপডেট সময় : ০৯:১৫:৩৯ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২৩

 

হাকিমপুর (হিলি) প্রতিনিধি

স্ত্রীর নামে জাল স্বাক্ষর করে একাউন্ট খুলে কোটি টাকা আত্বসাৎ করার অভিযোগে ব্যাংক কর্মকর্তা বিরুদ্ধে সংবাদ সম্মেলন করেছেন দিনাজপুরের হিলি স্থলবন্দরের মোস্তাফিজুর রহমান নামের এক ব্যবসায়ী।
মঙ্গলবার (১৯ সেপ্টেম্বর) বেলা ১১ টায় হাকিমপুর (হিলি) প্রেসক্লাবে এক সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে তিনি এ অভিযোগ করেন।
লিখিত বক্তব্যে তিনি জানান,২০১৮ সালে দিনাজপুর ইসলামী ব্যাংকের শাখা ব্যাস্থাপক শাহাজাহান নিজেই ব্যবসায়ী মোস্তাফিজুর রহমানের স্ত্রী নারগিস পারভীনের নামে স্বাক্ষর জাল করে গোপনে তার শাখায় একটি একাউন্ট খোলেন। এবং তিনটি চেকের মাধ্যমে ৯৯ লাখ টাকা উত্তোলন দেখান। এরপর তিনি অন্য শাখায় বদলি হন। পরবর্তী ওই ব্যাংকের শাখা ব্যবস্থাপক রফিকুল ইসলামের সময়ে তিনি অবগত হন যে তার স্ত্রী ওই ব্যাংক থেকে ৯৯ লাখ টাকা লোন নিয়েছেন। বিষয়টি জানতে পেরে শাখা ব্যবস্থাপক রফিকুল ইসলামের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি ওই লোনের বিপরীতে ও এলসি ব্যবসা করার জন্য একটি একাউন্ট খুলতে বলেন। তিনি সরল মনে একাউন্ট খোলেন। এর এক সপ্তাহ পরে ব্যাংক কর্মকর্তারাই তার স্বাক্ষর জাল করে দিনাজপুর আদালতে চেক জালিয়াতির একটি মামলা দায়ের করেন। তিনি অভিযোগ করে বলেন, মামলা দায়েরের পর থেকেই ব্যাংক তাকে নানা ভাবে হয়রানি করে আসছে। তাই তিনি তদন্ত সাপেক্ষে ন্যায় বিচারের জন্য দিনাজপুর দায়রা জজ আদালতের প্রতি অনুরোধ জানান।