ঢাকা ০৫:৫৩ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ১৩ এপ্রিল ২০২৪, ২৯ চৈত্র ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

তাড়াশে সরকারী খাস জায়গা দখল করার অভিযোগ পাওয়ার গেছে

নিউজ ডেস্ক
  • আপডেট সময় : ০২:৪৩:১৩ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১১ অগাস্ট ২০২৩
  • / ৩৮৮ বার পড়া হয়েছে

রফিকুল ইসলাম, তাড়াশ ( সিরাজগঞ্জ) প্রতিনিধি:

সিরাজগঞ্জের তাড়াশে সরকারী খাস জায়গা দখল পূর্বক রাস্তা অবরোধ করে অবৈধ স্থাপনা নির্মান ও টিনের দেওয়ার অভিযোগ পাওয়ার গেছে। সরকারী খাস জায়গা দখল মুক্ত ও গ্রাম বাসীর যাতায়াতের পথ উন্মুক্ত করার দাবী জানিয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ( ইউএনও) বরাবর একটি অভিযোগ দিয়েছেন শ্রী অশ্বিনী কুমার সরকার নামের এক গ্রামবাসী।
অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, উপজেলার বারুহাঁস ইউনিয়নের চৌবাড়িয়া গ্রামের অশ্বিনী কুমার সরকারের বাড়ির উত্তর পার্শ্বে তাড়াশ – বারুহাঁস রাস্তা পর্যন্ত সরকারী খাস জায়গা। যে রাস্তা দিয়ে ওই গ্রামের প্রায় ৫০ থেকে ৬০ টি পরিবারের লোকজন যাতায়াত করত। কিন্তু ওই একই গ্রামের বাসিন্দা ও অবৈধ দখলদার মো. শাহীন মিঞা গং ও রমানাথ প্রামানিক মিলে রাতের অন্ধকারে সন্ত্রাসী কায়দায় ও সরকারী খাস জায়গায় অবৈধ স্থাপনা নির্মান করে। আর এতে জন সাধারণের চলাচলের পথ বন্ধ হয়ে যায়।
এ দিকে ওই বিবাদোমান জায়গায় অবৈধ স্থাপনা উপজেলা প্রশাসন উচ্ছেদ করলেও তারা আবারও অবৈধ স্থাপনা নির্মান করে।
ফলে ওই সরকারি খাস জায়গা দখল করে জন সাধারণের চলাচলের পথ বন্ধ হএয়ায় স্থানীয় গ্রামবাসীর যাতায়াত, গবাদিপশু বাহিরে আনা নেওয়া, মাঠের ফসল আনা- নেওয়ায চরম বিপাকে পড়েছেন কৃষকেরা।
আন এ অবস্থায় প্রতিকার চেয়ে উপজেলা নিঁর্বাহী কর্মকর্তা সহসরকারের বিভিন্ন দপ্তরে অভিযোগ দেন ভুক্তভোগীদের পক্ষে অশ্বিনী কুমার সরকার।
এ ব্যাপারে অভিযুক্ত মো. শাহীন মিঞা গং ও রমানাথ প্রামানিক বলেন, ওই জায়গা আমাদের লীজ নেয়া। আমরা আমাদের জায়গায় ঘর নির্মান করেছি।
অভিযোগের বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মো. মেজবাউল করিম বলেন, অভিযোগের বিষয়টি তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

তাড়াশে সরকারী খাস জায়গা দখল করার অভিযোগ পাওয়ার গেছে

আপডেট সময় : ০২:৪৩:১৩ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১১ অগাস্ট ২০২৩

রফিকুল ইসলাম, তাড়াশ ( সিরাজগঞ্জ) প্রতিনিধি:

সিরাজগঞ্জের তাড়াশে সরকারী খাস জায়গা দখল পূর্বক রাস্তা অবরোধ করে অবৈধ স্থাপনা নির্মান ও টিনের দেওয়ার অভিযোগ পাওয়ার গেছে। সরকারী খাস জায়গা দখল মুক্ত ও গ্রাম বাসীর যাতায়াতের পথ উন্মুক্ত করার দাবী জানিয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ( ইউএনও) বরাবর একটি অভিযোগ দিয়েছেন শ্রী অশ্বিনী কুমার সরকার নামের এক গ্রামবাসী।
অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, উপজেলার বারুহাঁস ইউনিয়নের চৌবাড়িয়া গ্রামের অশ্বিনী কুমার সরকারের বাড়ির উত্তর পার্শ্বে তাড়াশ – বারুহাঁস রাস্তা পর্যন্ত সরকারী খাস জায়গা। যে রাস্তা দিয়ে ওই গ্রামের প্রায় ৫০ থেকে ৬০ টি পরিবারের লোকজন যাতায়াত করত। কিন্তু ওই একই গ্রামের বাসিন্দা ও অবৈধ দখলদার মো. শাহীন মিঞা গং ও রমানাথ প্রামানিক মিলে রাতের অন্ধকারে সন্ত্রাসী কায়দায় ও সরকারী খাস জায়গায় অবৈধ স্থাপনা নির্মান করে। আর এতে জন সাধারণের চলাচলের পথ বন্ধ হয়ে যায়।
এ দিকে ওই বিবাদোমান জায়গায় অবৈধ স্থাপনা উপজেলা প্রশাসন উচ্ছেদ করলেও তারা আবারও অবৈধ স্থাপনা নির্মান করে।
ফলে ওই সরকারি খাস জায়গা দখল করে জন সাধারণের চলাচলের পথ বন্ধ হএয়ায় স্থানীয় গ্রামবাসীর যাতায়াত, গবাদিপশু বাহিরে আনা নেওয়া, মাঠের ফসল আনা- নেওয়ায চরম বিপাকে পড়েছেন কৃষকেরা।
আন এ অবস্থায় প্রতিকার চেয়ে উপজেলা নিঁর্বাহী কর্মকর্তা সহসরকারের বিভিন্ন দপ্তরে অভিযোগ দেন ভুক্তভোগীদের পক্ষে অশ্বিনী কুমার সরকার।
এ ব্যাপারে অভিযুক্ত মো. শাহীন মিঞা গং ও রমানাথ প্রামানিক বলেন, ওই জায়গা আমাদের লীজ নেয়া। আমরা আমাদের জায়গায় ঘর নির্মান করেছি।
অভিযোগের বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মো. মেজবাউল করিম বলেন, অভিযোগের বিষয়টি তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।