ঢাকা ০৮:৪৪ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১১ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::
পাঁচবিবিতে কোকতারা আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয়ে জানালার গ্রিল ভেঙ্গে দুধর্ষ চুরি ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় ট্রাক্টর দূর্ঘটনায় নিহত ২ পাঁচবিবিতে বুড়াবুড়ির মাজারে ২৫তম বাৎসরিক ওয়াজ মাহফিলের প্রস্তুতি সভা হিলি সীমান্তে দুই বাংলার আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালিত হরিপুরে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালিত পাঁচবিবিতে নির্বাচনী মাঠে মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী মোছাঃ রেবেকা সুলতানা বিরামপুরে সমতল ভূমিতে বসবাসরত ৩৫০ ক্ষুদ্র নৃ- গোষ্ঠীর মাঝে বিনামূল্যে মুরগি বিতরণ পাঁচবিবিতে আবু হোসাইন হত্যা মামলায় মা-ছেলেসহ ৫ জনের মৃত্যুদণ্ড পাঁচবিবিতে বন্ধুত্বের মিলন মেলা-৯০ অনুষ্ঠিত হিলিতে দিনব্যাপি পণ্য প্রদর্শর্নী ও পিঠা উৎসব অনুষ্ঠিত

নওগাঁর সাপাহার থেকে জেএমবি সদস্য আরিফ হোসেন গ্রেফতার

নিউজ ডেস্ক
  • আপডেট সময় : ০৬:২৯:৫৭ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৭ জুলাই ২০২৩
  • / ৩৫৫ বার পড়া হয়েছে

 

দবিরুল ইসলাম পাঁচবিবি (জয়পুরহাট) প্রতিনিধি:

জয়পুরহাট র‍্যাব-৫ ও র‍্যাব-২ এর যৌথ একটি আভিযানিক দল গোপন সংবাদের ভিত্তিতে টানা ২ দিনের রুদ্ধশ্বাস অভিযান পরিচালনা করে গত ২৬ জুলাই মধ্যাহ্নে নওগাঁ জেলার সাপাহার থানা এলাকা হতে উক্ত এলাকার মোঃ ইমাম হোসেনের পুত্র জেএমবি নেতা এবং দাওয়াতি বিভাগের সক্রিয় সদস্য মোঃ আরিফ হোসেন(২৭)কে গ্রেফতার করে।গ্রেফতারকৃত আসামীকে আইনি প্রক্রিয়ায় সাপাহার থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে। জয়পুরহাট র‍্যাব-৫ ক্যাম্পের প্রেরিত এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে কোম্পানী অধিনায়ক সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার মোঃ রফিকুল ইসলাম জানান,গত ২২ জুলাই ২০১৭ সালে ডিএমপি ঢাকার মোহাম্মাদপুর থানা এলাকায় নিষিদ্ধ ঘোষিদ্ধ জঙ্গি সংগঠন জেএমবির একদল লোক নাশকতামূলক কর্মকান্ড ঘটানোর পরিকল্পনার জন্য গোপন বৈঠকে মিলিত হলে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর উপস্থিত টের পেয়ে উক্ত আসামী আরিফ পালিয়ে গেলেও ১। মোঃ সোহাইব
শেখ,২। মোঃ রফিকুল ইসলাম @ রফিক বিদেশী পিস্তল, ২ (দুই) রাউন্ড গুলি ভর্তি ম্যাগাজিন ও ১ টি ধারালো চাপাতি এবং নানা রকম উগ্রবাদী বই সহ হাতেনাতে গ্রেফতার হয় এবং মোহাম্মাদপুর থানায় একটি নিয়মিত মামলা রুজু হয়। পরবর্তীতে
গ্রেফতারকৃতদের জিজ্ঞাসাবাদে জানা যায়,মোঃ আরিফ হোসেনসহ বেশ কয়েকজন জেএমবি সদস্য পালিয়ে গিয়েছিলো,তাদের মধ্যে মোঃ আরিফ হোসেন(২৭) একজন দূর্ধর্ষ জেএমজি নেতা। তাদের দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতে মামলা তদন্তকারী কর্মকর্তা উল্লেখিত আসামীকে গ্রেফতার করে বিজ্ঞ আদালতে প্রেরণ করেন। জঙ্গী আরিফ জামিনের পর পলাতক হলে বিজ্ঞ সন্ত্রাস বিরোধী ট্রাইব্যুনাল উক্ত আসামীর বিরুদ্ধে গ্রেফতারী পরোয়ানা ইস্যু করেন। এছাড়াও মামলায় জামিনের পর থেকে উক্ত আসামী আইনশৃংঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর হাতে গ্রেফতার এড়াতে বারবার অবস্থান পরিবর্তন করে আসছিল এবং নিষিদ্ধ ঘোষিত জঙ্গী সংগঠন জেএমবির কার্যক্রম গোপনে চালিয়ে যাচ্ছিল।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

নওগাঁর সাপাহার থেকে জেএমবি সদস্য আরিফ হোসেন গ্রেফতার

আপডেট সময় : ০৬:২৯:৫৭ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৭ জুলাই ২০২৩

 

দবিরুল ইসলাম পাঁচবিবি (জয়পুরহাট) প্রতিনিধি:

জয়পুরহাট র‍্যাব-৫ ও র‍্যাব-২ এর যৌথ একটি আভিযানিক দল গোপন সংবাদের ভিত্তিতে টানা ২ দিনের রুদ্ধশ্বাস অভিযান পরিচালনা করে গত ২৬ জুলাই মধ্যাহ্নে নওগাঁ জেলার সাপাহার থানা এলাকা হতে উক্ত এলাকার মোঃ ইমাম হোসেনের পুত্র জেএমবি নেতা এবং দাওয়াতি বিভাগের সক্রিয় সদস্য মোঃ আরিফ হোসেন(২৭)কে গ্রেফতার করে।গ্রেফতারকৃত আসামীকে আইনি প্রক্রিয়ায় সাপাহার থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে। জয়পুরহাট র‍্যাব-৫ ক্যাম্পের প্রেরিত এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে কোম্পানী অধিনায়ক সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার মোঃ রফিকুল ইসলাম জানান,গত ২২ জুলাই ২০১৭ সালে ডিএমপি ঢাকার মোহাম্মাদপুর থানা এলাকায় নিষিদ্ধ ঘোষিদ্ধ জঙ্গি সংগঠন জেএমবির একদল লোক নাশকতামূলক কর্মকান্ড ঘটানোর পরিকল্পনার জন্য গোপন বৈঠকে মিলিত হলে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর উপস্থিত টের পেয়ে উক্ত আসামী আরিফ পালিয়ে গেলেও ১। মোঃ সোহাইব
শেখ,২। মোঃ রফিকুল ইসলাম @ রফিক বিদেশী পিস্তল, ২ (দুই) রাউন্ড গুলি ভর্তি ম্যাগাজিন ও ১ টি ধারালো চাপাতি এবং নানা রকম উগ্রবাদী বই সহ হাতেনাতে গ্রেফতার হয় এবং মোহাম্মাদপুর থানায় একটি নিয়মিত মামলা রুজু হয়। পরবর্তীতে
গ্রেফতারকৃতদের জিজ্ঞাসাবাদে জানা যায়,মোঃ আরিফ হোসেনসহ বেশ কয়েকজন জেএমবি সদস্য পালিয়ে গিয়েছিলো,তাদের মধ্যে মোঃ আরিফ হোসেন(২৭) একজন দূর্ধর্ষ জেএমজি নেতা। তাদের দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতে মামলা তদন্তকারী কর্মকর্তা উল্লেখিত আসামীকে গ্রেফতার করে বিজ্ঞ আদালতে প্রেরণ করেন। জঙ্গী আরিফ জামিনের পর পলাতক হলে বিজ্ঞ সন্ত্রাস বিরোধী ট্রাইব্যুনাল উক্ত আসামীর বিরুদ্ধে গ্রেফতারী পরোয়ানা ইস্যু করেন। এছাড়াও মামলায় জামিনের পর থেকে উক্ত আসামী আইনশৃংঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর হাতে গ্রেফতার এড়াতে বারবার অবস্থান পরিবর্তন করে আসছিল এবং নিষিদ্ধ ঘোষিত জঙ্গী সংগঠন জেএমবির কার্যক্রম গোপনে চালিয়ে যাচ্ছিল।