ঢাকা ০৭:৪৯ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১৯ এপ্রিল ২০২৪, ৬ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

নিহত স্কুল ছাত্রীর পাশে নেত্রকোণার জেলা প্রশাসক

ফাইভ স্টার ডেস্ক
  • আপডেট সময় : ০১:০২:০৭ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ৯ মে ২০২৩
  • / ৩৭২ বার পড়া হয়েছে

নেত্রকোণা জেলার বারহাট্টা উপজেলায় বখাটের হাতে নিহত স্কুলছাত্রী মুক্তি বর্মণের পরিবারের পাশে দাঁড়িয়েছে নেত্রকোণা জেলা প্রশাসন।

০৯ই মে (মঙ্গলবার) জেলা প্রশাসক জনাব অঞ্জনা খান মজলিশ নিহত মুক্তি বর্মণের পরিবারের সাথে দেখা করেন সেই সাথে তিনি নিহত মুক্তি বর্মণের ছয় বোনের মধ্যে বড় বোন নিপা রানী বর্মনকে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে আউটসোর্সিংয়ে চাকুরির ব্যবস্থা করে দেন।

মূলত পরিবারটির অসচ্ছলতা কাটিয়ে উঠা ও অন্যান্য বোনদের পড়াশোনা চালিয়ে যাওয়ার লক্ষ্যে কর্মসংস্থান জরুরি হওয়ায় পরিবারের বড় মেয়েকে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে চাকুরির ব্যবস্থা করেন জেলা প্রশাসক।

উল্লেখ্য, নেত্রকোণার বারহাট্টার বাউসী ইউনিয়নের প্রেমনগর ছালিপুড়া উচ্চ বিদ্যালয়ের দশম শ্রেনীর ছাত্রী মুক্তি বর্মণকে একই এলাকার কাওসার নামে এক যুবক গত ২ মে বিকালে ধারালো দা দিয়ে প্রকাশ্য দিবালোকে খুন করে। এই খুনের ঘটনায় সারা দেশে নিন্দার ঝড় উঠে। পরে ডিবি পুলিশ অধিক তৎপরতা চালিয়ে ২৪ ঘন্টার মধ্যেই আসামী কাওসারকে পাশের একটি জঙ্গল খেকে আটক করে এবং কাওসার প্রাথমিকভাবে এই খুনের ঘটনার কথা স্বীকার করে। মুক্তির পিতা বারহাট্টা থানায় কাওসারকে আসামী করে মামলা দায়েরও করেন। কাওসার বর্তমানে জেল হাজতে রয়েছে।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

আপলোডকারীর তথ্য

নিহত স্কুল ছাত্রীর পাশে নেত্রকোণার জেলা প্রশাসক

আপডেট সময় : ০১:০২:০৭ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ৯ মে ২০২৩

নেত্রকোণা জেলার বারহাট্টা উপজেলায় বখাটের হাতে নিহত স্কুলছাত্রী মুক্তি বর্মণের পরিবারের পাশে দাঁড়িয়েছে নেত্রকোণা জেলা প্রশাসন।

০৯ই মে (মঙ্গলবার) জেলা প্রশাসক জনাব অঞ্জনা খান মজলিশ নিহত মুক্তি বর্মণের পরিবারের সাথে দেখা করেন সেই সাথে তিনি নিহত মুক্তি বর্মণের ছয় বোনের মধ্যে বড় বোন নিপা রানী বর্মনকে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে আউটসোর্সিংয়ে চাকুরির ব্যবস্থা করে দেন।

মূলত পরিবারটির অসচ্ছলতা কাটিয়ে উঠা ও অন্যান্য বোনদের পড়াশোনা চালিয়ে যাওয়ার লক্ষ্যে কর্মসংস্থান জরুরি হওয়ায় পরিবারের বড় মেয়েকে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে চাকুরির ব্যবস্থা করেন জেলা প্রশাসক।

উল্লেখ্য, নেত্রকোণার বারহাট্টার বাউসী ইউনিয়নের প্রেমনগর ছালিপুড়া উচ্চ বিদ্যালয়ের দশম শ্রেনীর ছাত্রী মুক্তি বর্মণকে একই এলাকার কাওসার নামে এক যুবক গত ২ মে বিকালে ধারালো দা দিয়ে প্রকাশ্য দিবালোকে খুন করে। এই খুনের ঘটনায় সারা দেশে নিন্দার ঝড় উঠে। পরে ডিবি পুলিশ অধিক তৎপরতা চালিয়ে ২৪ ঘন্টার মধ্যেই আসামী কাওসারকে পাশের একটি জঙ্গল খেকে আটক করে এবং কাওসার প্রাথমিকভাবে এই খুনের ঘটনার কথা স্বীকার করে। মুক্তির পিতা বারহাট্টা থানায় কাওসারকে আসামী করে মামলা দায়েরও করেন। কাওসার বর্তমানে জেল হাজতে রয়েছে।