ঢাকা ০৩:২৩ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ২৩ জুন ২০২৪, ৮ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

পাঁচবিবিতে মুরশিদা হত্যা মামলায় স্বামী-স্ত্রীসহ ৩ জনের যাবজ্জীবন কারাদণ্ড

নিউজ ডেস্ক
  • আপডেট সময় : ০৯:০৭:২৩ অপরাহ্ন, বুধবার, ১২ জুলাই ২০২৩
  • / ৪২০ বার পড়া হয়েছে

দবিরুল ইসলাম পাঁচবিবি (জয়পুরহাট) প্রতিনিধি:

জয়পুরহাটের পাঁচবিবিতে মঞ্জিলা ওরফে মুরশিদা হত্যা মামলার ২৩ বছর পর স্বামী-স্ত্রীসহ ৩ জনের যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। এছাড়া প্রত্যেককে ১০ হাজার টাকা করে জরিমানা অনাদায়ে আরো ১ বছরের সশ্রম কারাদন্ড দেয়া হয়। অন্যদিকে মামলার ২০১ ধারায় তাদের ৫ বছর করে সশ্রম কারাদন্ড, ২ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরো ৩ মাসের কারাদন্ড দেন বিচারক।
আজ বুধবার দুপুরে জয়পু্রহাটের জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক সিনিয়র দায়রা জজ নূর ইসলাম এ রায় দেন।দন্ড-প্রাপ্তরা হলেন, জেলার পাঁচবিবি উপজেলার হরেন্দা গ্রামের মৃত নিজাম উদ্দীনের পুত্র আতাউর রহমান, তার স্ত্রী মেরিনা বেগম ও একই গ্রামের মৃত হাউস মিয়ার পুত্র আমজাদ হোসেন।
মামলার বিবরণে জানা যায়, পাঁচবিবি উপজেলার আজরা সিধুইল গ্রামের মৃত মোকছেদ আলীর মেয়ে মঞ্জিলা ওরফে মুরশিদার সৎ মা আনোয়ারার খালাতো ভাই ছিলেন আসামী আতাউর রহমান। মোকছেদ আলী মারা যাওয়ার পর তার জমির ভাগের ১৮ হাজার টাকা ছিল মঞ্জিলার নামে। সেই টাকা আত্মসাৎ করার উদ্দেশ্যে আতাউর মঞ্জিলার ভাল জায়গায় বিয়ে দিবেন বলে প্রলোভন দিয়ে তার নিজ বাড়িতে নিয়ে যান।
সেখানে ২০০০ সালের ১২ মে আসামীরা পূর্ব পরিকল্পনা অনুযায়ী মঞ্জিলাকে মারপিট করে মুখে বিষ ঢেলে দিয়ে হত্যা করে। এসময় সেই ঘটনা আত্মহত্যা বলে তারা প্রচার করেন। পরে ময়নাতদন্ত ও ঘটনার তদন্তে বেড়িয়ে আসে তাকে হত্যা করা হয়েছে।
এ ঘটনায় নিহতের আপন মা খালেদা বেওয়া বাদীয় হয়ে থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। এ মামলার দীর্ঘ শুনানি শেষে আসামীদের বিরুদ্ধে অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় আদালত আজ এ রায় দেন।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

পাঁচবিবিতে মুরশিদা হত্যা মামলায় স্বামী-স্ত্রীসহ ৩ জনের যাবজ্জীবন কারাদণ্ড

আপডেট সময় : ০৯:০৭:২৩ অপরাহ্ন, বুধবার, ১২ জুলাই ২০২৩

দবিরুল ইসলাম পাঁচবিবি (জয়পুরহাট) প্রতিনিধি:

জয়পুরহাটের পাঁচবিবিতে মঞ্জিলা ওরফে মুরশিদা হত্যা মামলার ২৩ বছর পর স্বামী-স্ত্রীসহ ৩ জনের যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। এছাড়া প্রত্যেককে ১০ হাজার টাকা করে জরিমানা অনাদায়ে আরো ১ বছরের সশ্রম কারাদন্ড দেয়া হয়। অন্যদিকে মামলার ২০১ ধারায় তাদের ৫ বছর করে সশ্রম কারাদন্ড, ২ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরো ৩ মাসের কারাদন্ড দেন বিচারক।
আজ বুধবার দুপুরে জয়পু্রহাটের জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক সিনিয়র দায়রা জজ নূর ইসলাম এ রায় দেন।দন্ড-প্রাপ্তরা হলেন, জেলার পাঁচবিবি উপজেলার হরেন্দা গ্রামের মৃত নিজাম উদ্দীনের পুত্র আতাউর রহমান, তার স্ত্রী মেরিনা বেগম ও একই গ্রামের মৃত হাউস মিয়ার পুত্র আমজাদ হোসেন।
মামলার বিবরণে জানা যায়, পাঁচবিবি উপজেলার আজরা সিধুইল গ্রামের মৃত মোকছেদ আলীর মেয়ে মঞ্জিলা ওরফে মুরশিদার সৎ মা আনোয়ারার খালাতো ভাই ছিলেন আসামী আতাউর রহমান। মোকছেদ আলী মারা যাওয়ার পর তার জমির ভাগের ১৮ হাজার টাকা ছিল মঞ্জিলার নামে। সেই টাকা আত্মসাৎ করার উদ্দেশ্যে আতাউর মঞ্জিলার ভাল জায়গায় বিয়ে দিবেন বলে প্রলোভন দিয়ে তার নিজ বাড়িতে নিয়ে যান।
সেখানে ২০০০ সালের ১২ মে আসামীরা পূর্ব পরিকল্পনা অনুযায়ী মঞ্জিলাকে মারপিট করে মুখে বিষ ঢেলে দিয়ে হত্যা করে। এসময় সেই ঘটনা আত্মহত্যা বলে তারা প্রচার করেন। পরে ময়নাতদন্ত ও ঘটনার তদন্তে বেড়িয়ে আসে তাকে হত্যা করা হয়েছে।
এ ঘটনায় নিহতের আপন মা খালেদা বেওয়া বাদীয় হয়ে থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। এ মামলার দীর্ঘ শুনানি শেষে আসামীদের বিরুদ্ধে অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় আদালত আজ এ রায় দেন।