ঢাকা ০১:২৮ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৫ এপ্রিল ২০২৪, ১১ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ফুলবাড়ীতে মিথ্যা মামলা প্রত্যাহারের দাবিতে জাতীয়তাবাদী সংগ্রামী দলের প্রতিবাদ সভা

নিউজ ডেস্ক
  • আপডেট সময় : ১০:১৫:২৭ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ৩ জুলাই ২০২৩
  • / ৪৫৩ বার পড়া হয়েছে

মাইদুল ইসলাম, ফুলবাড়ী (কুড়িগ্রাম) প্রতিনিধিঃ

কুড়িগ্রামের ফুলবাড়ীতে কাশিপুর ইউনিয়নের ৬ নং ওয়ার্ডের আওয়ামী লীগ সাধারন সম্পাদক নুর আলম কর্তৃক কেন্দ্রীয় ছাত্রদলের সহ-সভাপতি মাহাবুব মিয়াসহ ২৮ নেতাকর্মীর বিরুদ্ধে ফুলবাড়ী থানায় মিথ্যা মামলা প্রত্যাহারের দাবিতে প্রতিবাদ সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

রোববার সন্ধ্যার পর ফুলবাড়ী বাজারের একটি ব্যবসায়ী হলরুমে অনুষ্ঠিত প্রতিবাদ সভায় সভাপতিত্ব করেন কেন্দ্রীয় জাতীয়তাবাদী সংগ্রামী দলের যুগ্ম সাধারন সম্পাদক রাশেদুল হক রানা।
উপজেলা সংগ্রামী দলের আহবায়ক হাসানুর রহমানের সঞ্চালনায় বক্তব্য রাখেন উপজেলা ছাত্রদল ও যুবদলের সাবেক সভাপতি সামসুজ্জামান হাসু, ফুলবাড়ী সদর ইউনিয়ন বিএনপির সভাপতি মোস্তাফিজুর রহমান মুকুল প্রমূখ।

এতে অন্যান্যর মধ্যে উপস্থিত ছিলেন ছাত্রদলের সাবেক নেতা আব্দুর রাজ্জাক, জুয়েল রানা, শরিফুল ইসলাম শাওন, উপজেলা সংগ্রামী দলের যুগ্ম আহবায়ক সুজন রায় শুভ, উপজেলা জিয়া সাইবার ফোর্স-এর সাধারন সম্পাদক রিয়াজুল ইসলাম, হাবিবুর রহমান হাবীব প্রমূখ।

বক্তারা বলেন, কেন্দ্রীয় ছাত্রদলের সহ-সভাপতি মাহাবুব মিয়া ফুলবাড়ী উপজেলা বিএনপি ও অঙ্গসংগঠনের নেতাকর্মীদের নিয়ে ঈদুল আজহা উপলক্ষে অন্যান্য নেতাকর্মীদের সৌজন্য সাক্ষাত ও শুভেচ্ছা বিনিময়ের ২৪ জুন জন্য বের হন।
তারা স্থানীয় কলেজ মোড়ে আসলে ফুলবাড়ী উপজেলার কাশিপুর ইউনিয়নের ৬ নং ওয়ার্ডের আওয়ামী লীগ সাধারন সম্পাদক নুর আলম কেন্দ্রীয় ছাত্রদলের সহ-সভাপতি মাহাবুব মিয়াসহ অন্যদের বাঁধা প্রদান করেন। এতে সংঘর্ষ বাঁধলে উপজেলা ছাত্রদলের সদস্য সচিব বিষ্ণু চন্দ্র, যুবদল কর্মী শহিদুল ইসলাম আহত হয়। এ সময় যুবদল নেতা জাহাঙ্গীর আলমের মোটরসাইকেল ভাঙচুর, যুবদলকর্মী ফারুক হোসেনের দোকান ভাঙচুর করে আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীরা। তারা বিএনপি ও তার অঙ্গসংগঠনের নেতাকর্মীদের হামলা ভাঙচুর করলেও উল্টো কেন্দ্রীয় ছাত্রদলের সহ-সভাপতি মাহাবুব মিয়াসহ ২৮ নেতাকর্মীর বিরুদ্ধে ফুলবাড়ী থানায় মিথ্যা মামলা দায়ের করে। আমরা এই মিথ্যে মামলা প্রত্যাহার দাবি করছি।

এদিকে মামলার বিবরণে ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, ২৪ জুন রাত ৮ টার দিকে কেন্দ্রীয় ছাত্রদলের সহ-সভাপতি মাহাবুব মিয়াসহ স্থানীয় ছাত্রদল নেতাকর্মীরা কাশিপুর কলেজ মোড়ে মিছিল নিয়ে আসে। এ সময় তারা আওয়ামী লীগ সভানেত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বিরুদ্ধে কটুক্তিমূলক কথাবার্তা ও স্লোগান দেয়।
এ বিষয়াটা জানতে পেরে ৬নং ওয়ার্ডের আওয়ামী লীগ সাধারন সম্পাদক নুর আলম ছাত্রদল নেতা কর্মীদের সেখান থেকে চলে যেতে বলেন। এতে দু পক্ষের মাঝে সংঘর্ষের সৃষ্টি হয়। আওয়ামী লীগ সাধারন সম্পাদক নুর আলম আহত হয়।
স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীরা ও স্থানীয় লোকজন নুর আলমকে উদ্ধার করে ফুলবাড়ী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করান। পরের দিন ২৫ জুন রোববার রাতে হামলার শিকার আওয়ামী লীগ সাধারন সম্পাদক নুর আলম বাদী হয়ে ফুলবাড়ী থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। মামলা নং-২৮।
এ মামলায় ১নং আসামী করা হয় কেন্দ্রীয় ছাত্রদলের সহ-সভাপতি মাহাবুব মিয়াসহ স্থানীয় ছাত্রদল নেতাকর্মীসহ বিএনপি ও তার অঙ্গ সংগঠনের অন্যান্য ১৩ নেতাকর্মী ও অজ্ঞাত আরও ১৫ জনকে।

এ ব্যাপারে ফুলবাড়ী থানার ওসি ফজলুর রহমান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, মামলায় অভিযুক্ত আসামীদের গ্রেফতারের চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে।

 

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

ফুলবাড়ীতে মিথ্যা মামলা প্রত্যাহারের দাবিতে জাতীয়তাবাদী সংগ্রামী দলের প্রতিবাদ সভা

আপডেট সময় : ১০:১৫:২৭ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ৩ জুলাই ২০২৩

মাইদুল ইসলাম, ফুলবাড়ী (কুড়িগ্রাম) প্রতিনিধিঃ

কুড়িগ্রামের ফুলবাড়ীতে কাশিপুর ইউনিয়নের ৬ নং ওয়ার্ডের আওয়ামী লীগ সাধারন সম্পাদক নুর আলম কর্তৃক কেন্দ্রীয় ছাত্রদলের সহ-সভাপতি মাহাবুব মিয়াসহ ২৮ নেতাকর্মীর বিরুদ্ধে ফুলবাড়ী থানায় মিথ্যা মামলা প্রত্যাহারের দাবিতে প্রতিবাদ সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

রোববার সন্ধ্যার পর ফুলবাড়ী বাজারের একটি ব্যবসায়ী হলরুমে অনুষ্ঠিত প্রতিবাদ সভায় সভাপতিত্ব করেন কেন্দ্রীয় জাতীয়তাবাদী সংগ্রামী দলের যুগ্ম সাধারন সম্পাদক রাশেদুল হক রানা।
উপজেলা সংগ্রামী দলের আহবায়ক হাসানুর রহমানের সঞ্চালনায় বক্তব্য রাখেন উপজেলা ছাত্রদল ও যুবদলের সাবেক সভাপতি সামসুজ্জামান হাসু, ফুলবাড়ী সদর ইউনিয়ন বিএনপির সভাপতি মোস্তাফিজুর রহমান মুকুল প্রমূখ।

এতে অন্যান্যর মধ্যে উপস্থিত ছিলেন ছাত্রদলের সাবেক নেতা আব্দুর রাজ্জাক, জুয়েল রানা, শরিফুল ইসলাম শাওন, উপজেলা সংগ্রামী দলের যুগ্ম আহবায়ক সুজন রায় শুভ, উপজেলা জিয়া সাইবার ফোর্স-এর সাধারন সম্পাদক রিয়াজুল ইসলাম, হাবিবুর রহমান হাবীব প্রমূখ।

বক্তারা বলেন, কেন্দ্রীয় ছাত্রদলের সহ-সভাপতি মাহাবুব মিয়া ফুলবাড়ী উপজেলা বিএনপি ও অঙ্গসংগঠনের নেতাকর্মীদের নিয়ে ঈদুল আজহা উপলক্ষে অন্যান্য নেতাকর্মীদের সৌজন্য সাক্ষাত ও শুভেচ্ছা বিনিময়ের ২৪ জুন জন্য বের হন।
তারা স্থানীয় কলেজ মোড়ে আসলে ফুলবাড়ী উপজেলার কাশিপুর ইউনিয়নের ৬ নং ওয়ার্ডের আওয়ামী লীগ সাধারন সম্পাদক নুর আলম কেন্দ্রীয় ছাত্রদলের সহ-সভাপতি মাহাবুব মিয়াসহ অন্যদের বাঁধা প্রদান করেন। এতে সংঘর্ষ বাঁধলে উপজেলা ছাত্রদলের সদস্য সচিব বিষ্ণু চন্দ্র, যুবদল কর্মী শহিদুল ইসলাম আহত হয়। এ সময় যুবদল নেতা জাহাঙ্গীর আলমের মোটরসাইকেল ভাঙচুর, যুবদলকর্মী ফারুক হোসেনের দোকান ভাঙচুর করে আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীরা। তারা বিএনপি ও তার অঙ্গসংগঠনের নেতাকর্মীদের হামলা ভাঙচুর করলেও উল্টো কেন্দ্রীয় ছাত্রদলের সহ-সভাপতি মাহাবুব মিয়াসহ ২৮ নেতাকর্মীর বিরুদ্ধে ফুলবাড়ী থানায় মিথ্যা মামলা দায়ের করে। আমরা এই মিথ্যে মামলা প্রত্যাহার দাবি করছি।

এদিকে মামলার বিবরণে ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, ২৪ জুন রাত ৮ টার দিকে কেন্দ্রীয় ছাত্রদলের সহ-সভাপতি মাহাবুব মিয়াসহ স্থানীয় ছাত্রদল নেতাকর্মীরা কাশিপুর কলেজ মোড়ে মিছিল নিয়ে আসে। এ সময় তারা আওয়ামী লীগ সভানেত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বিরুদ্ধে কটুক্তিমূলক কথাবার্তা ও স্লোগান দেয়।
এ বিষয়াটা জানতে পেরে ৬নং ওয়ার্ডের আওয়ামী লীগ সাধারন সম্পাদক নুর আলম ছাত্রদল নেতা কর্মীদের সেখান থেকে চলে যেতে বলেন। এতে দু পক্ষের মাঝে সংঘর্ষের সৃষ্টি হয়। আওয়ামী লীগ সাধারন সম্পাদক নুর আলম আহত হয়।
স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীরা ও স্থানীয় লোকজন নুর আলমকে উদ্ধার করে ফুলবাড়ী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করান। পরের দিন ২৫ জুন রোববার রাতে হামলার শিকার আওয়ামী লীগ সাধারন সম্পাদক নুর আলম বাদী হয়ে ফুলবাড়ী থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। মামলা নং-২৮।
এ মামলায় ১নং আসামী করা হয় কেন্দ্রীয় ছাত্রদলের সহ-সভাপতি মাহাবুব মিয়াসহ স্থানীয় ছাত্রদল নেতাকর্মীসহ বিএনপি ও তার অঙ্গ সংগঠনের অন্যান্য ১৩ নেতাকর্মী ও অজ্ঞাত আরও ১৫ জনকে।

এ ব্যাপারে ফুলবাড়ী থানার ওসি ফজলুর রহমান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, মামলায় অভিযুক্ত আসামীদের গ্রেফতারের চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে।