ঢাকা ০২:০১ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১৪ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::
হিলি বন্দরে আমদানি-রপ্তানি বন্ধ বিরামপুর উপজেলায় ১০৩ বছরের বৃদ্ধা স্মার্ট জাতীয় পরিচয়পত্র নিলেন নাতি বৌয়ের কাঁধে ভর করে কিশোর কিশোরীর উজ্জ্বল ভবিষ্যত ও আলোকিত জীবন হিলিতে চেয়ারম্যান কাপ ফুটবল টুর্ণামেন্ট এর উদ্বোধন জয়পুরহাটে পুলিশ সুপার ম্যারাথন ও পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠিত পাঁচবিবিতে কোকতারা আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয়ে জানালার গ্রিল ভেঙ্গে দুধর্ষ চুরি ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় ট্রাক্টর দূর্ঘটনায় নিহত ২ পাঁচবিবিতে বুড়াবুড়ির মাজারে ২৫তম বাৎসরিক ওয়াজ মাহফিলের প্রস্তুতি সভা হিলি সীমান্তে দুই বাংলার আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালিত হরিপুরে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালিত

বরিশালে বন্ধ কারখানা চালুর দাবিতে বিক্ষোভ

নিউজ ডেস্ক
  • আপডেট সময় : ০৯:০৯:৩৬ অপরাহ্ন, সোমবার, ৩ জুলাই ২০২৩
  • / ৩৮৩ বার পড়া হয়েছে

মোঃ মশিউর রহমান সুমন। বরিশাল,প্রতিনিধিঃ

দেশের ২৬টি পাটকল ও ৬টি চিনির কলসহ বন্ধ করে দেওয়া সব কলকারখানা রাষ্ট্রীয় মালিকানায় চালুর দাবিতে বরিশালে বিক্ষোভ সমাবেশ করেছ শ্রমিকরা। সোমবার (৩জুলাই) দুপুরে নগরীর আশ্বিনী কুমার হলের সামনে জাতীয় শ্রমিক ফেডারেশন জেলা কমিটির উদ্যোগে এই কর্মসুচী হয়।

কালোদিবস উপলক্ষে আয়োজিত এই বিক্ষোভ সমাবেশ থেকে বক্তারা শ্রমিকদের বকেয়া পরিশোধের দাবি জানান।এছাড়া ১৭জুন ২০২৩ এর পাট কনভেনশনের ঘোষণা বাস্তবায়ন এবং অবাধ ট্রেড ইউনিয়ন অধিকার নিশ্চিতের দাবি জানানো হয়।

জাতীয় শ্রমিক ফেডারেশন কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক অধ্যাপক নৃপেন্দ্র নাথ বাড়ৈর সভাপতিত্বে বক্তৃতা করেন, বাংলাদেশের বিপ্লবী কমিউনিষ্ট লীগের কেন্দ্রীয় সদস্য অধ্যাপক জলিলুর রহমান, বাংলাদেশের ক্ষেত মজুর কেন্দ্রীয় কমিটি সদস্য উপাধাক্ষ হারুন অর- রশিদ, বাংলাদেশের বিপ্লবী কমিউনিষ্ট লীগের বরিশাল মহানগরের সাধারন সম্পাদক অধ্যাপক শাহ আজিজুর রহমান খোকন, জাতীয় শ্রমিক ফেডারেশনের বরিশাল জেলা কমিটির সাধারণ সম্পাদক আমির আলী ও সদস্য বিরেন রায় প্রমুখ।

বক্তারা বলেন, ২০২০সালে সরকার লোকসান ও পুরাতন কলকারখানার অজুহাত দেখিয়ে তা বন্ধ করে ৪০ হাজার পাটকল শ্রমিকদের নিঃস্ব করা হয়েছে। লুটপাট কারীদের অপকর্মে সহায়তার জন্য রাষ্ট্রয়ত্ত পাটকল বন্ধ করা হয়েছে। তাই শ্রমিকদের স্বার্থে বন্ধ হওয়া সব কলকারখানা রাষ্ট্রীয় মালিকানায় পুনরায় চালু করতে হবে।এছাড়া শ্রমিকদের বকেয়া মজুরী পরিশোধের দাবি জানাচ্ছি।

বক্তারা আরও বলেন, সরকার বারবার দেশের মানুষকে শুধু উন্নয়ন দেখায়, আমরাও স্বীকার করি পাশাপাশি লুটপাটকারীরাও টাকার পাহাড় গড়েছেন। অথচ শ্রমিকরা তাদের ন্যায্য অধিকার থেকে বঞ্চিত। তাই শ্রমিকদের অধিকার নিশ্চিত করতে এই সরকারের বিরুদ্ধে ঐক্যবদ্ধ আন্দোলনের আহবান জানান নেতারা।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

বরিশালে বন্ধ কারখানা চালুর দাবিতে বিক্ষোভ

আপডেট সময় : ০৯:০৯:৩৬ অপরাহ্ন, সোমবার, ৩ জুলাই ২০২৩

মোঃ মশিউর রহমান সুমন। বরিশাল,প্রতিনিধিঃ

দেশের ২৬টি পাটকল ও ৬টি চিনির কলসহ বন্ধ করে দেওয়া সব কলকারখানা রাষ্ট্রীয় মালিকানায় চালুর দাবিতে বরিশালে বিক্ষোভ সমাবেশ করেছ শ্রমিকরা। সোমবার (৩জুলাই) দুপুরে নগরীর আশ্বিনী কুমার হলের সামনে জাতীয় শ্রমিক ফেডারেশন জেলা কমিটির উদ্যোগে এই কর্মসুচী হয়।

কালোদিবস উপলক্ষে আয়োজিত এই বিক্ষোভ সমাবেশ থেকে বক্তারা শ্রমিকদের বকেয়া পরিশোধের দাবি জানান।এছাড়া ১৭জুন ২০২৩ এর পাট কনভেনশনের ঘোষণা বাস্তবায়ন এবং অবাধ ট্রেড ইউনিয়ন অধিকার নিশ্চিতের দাবি জানানো হয়।

জাতীয় শ্রমিক ফেডারেশন কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক অধ্যাপক নৃপেন্দ্র নাথ বাড়ৈর সভাপতিত্বে বক্তৃতা করেন, বাংলাদেশের বিপ্লবী কমিউনিষ্ট লীগের কেন্দ্রীয় সদস্য অধ্যাপক জলিলুর রহমান, বাংলাদেশের ক্ষেত মজুর কেন্দ্রীয় কমিটি সদস্য উপাধাক্ষ হারুন অর- রশিদ, বাংলাদেশের বিপ্লবী কমিউনিষ্ট লীগের বরিশাল মহানগরের সাধারন সম্পাদক অধ্যাপক শাহ আজিজুর রহমান খোকন, জাতীয় শ্রমিক ফেডারেশনের বরিশাল জেলা কমিটির সাধারণ সম্পাদক আমির আলী ও সদস্য বিরেন রায় প্রমুখ।

বক্তারা বলেন, ২০২০সালে সরকার লোকসান ও পুরাতন কলকারখানার অজুহাত দেখিয়ে তা বন্ধ করে ৪০ হাজার পাটকল শ্রমিকদের নিঃস্ব করা হয়েছে। লুটপাট কারীদের অপকর্মে সহায়তার জন্য রাষ্ট্রয়ত্ত পাটকল বন্ধ করা হয়েছে। তাই শ্রমিকদের স্বার্থে বন্ধ হওয়া সব কলকারখানা রাষ্ট্রীয় মালিকানায় পুনরায় চালু করতে হবে।এছাড়া শ্রমিকদের বকেয়া মজুরী পরিশোধের দাবি জানাচ্ছি।

বক্তারা আরও বলেন, সরকার বারবার দেশের মানুষকে শুধু উন্নয়ন দেখায়, আমরাও স্বীকার করি পাশাপাশি লুটপাটকারীরাও টাকার পাহাড় গড়েছেন। অথচ শ্রমিকরা তাদের ন্যায্য অধিকার থেকে বঞ্চিত। তাই শ্রমিকদের অধিকার নিশ্চিত করতে এই সরকারের বিরুদ্ধে ঐক্যবদ্ধ আন্দোলনের আহবান জানান নেতারা।