ঢাকা ০১:৫৬ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ২৪ মে ২০২৪, ৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::
হিলিতে আওয়ামী মৎস্যজীবী লীগের ২১ তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উদযাপন বিরামপুরে ধান, চাল ও গম ক্রয়ের শুভ উদ্বোধন করেন শিবলী সাদিক এমপি হোটেলে খেতে গিয়ে দায়িত্ব হারালেন প্রিজাইডিং কর্মকর্তা পাঁচবিবিতে খরায় লিচুর ফলন হ্রাস,বাগান মালিকের মাথায় হাত পাঁচবিবিতে ট্রাইকো কম্পোস্ট সার বাজারজাতকরণে মাঠ দিবস অনুষ্ঠিত আত্মসমর্পণের পর কারাগারে বিএনপি নেতা ইশরাক দুর্ঘটনার কবলে ইরানের প্রেসিডেন্টকে বহনকারী হেলিকপ্টার অবৈধ জুস তৈরির কারখানায় অভিযান, ১০ লাখ টাকা জরিমানা দেশ এখন মগের মুল্লুকে পরিণত হয়েছে : মির্জা ফখরুল ‘ভারত-চীনকে যুক্ত করতে পারলেই রোহিঙ্গা সংকট সমাধান সম্ভব’

বরিশালে সেতুর জন্য হাজার মানুষের দুর্ভোগ

নিউজ ডেস্ক
  • আপডেট সময় : ০৫:৫১:০৬ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ৪ জুলাই ২০২৩
  • / ৩৫৬ বার পড়া হয়েছে

বরিশাল প্রতিনিধিঃ

বরিশালের বাকেরগঞ্জ উপজেলার দুধল ইউনিয়নের সতরাজ বাজার সংলগ্ন মাদ্রাসা খালের উপর নির্মিত সেতুটি এখন হাজার মানুষের দুর্ভোগের কারন হয়ে দাঁড়িয়েছে। ভুক্তভোগীরা বলছেন সংস্কারের অভাবে সেতুটি এখন মরন ফাঁদে পরিনত হয়েছে।

স্টার নিউজ টুয়েন্টি ফোরের অনুসন্ধানে জানা যায়, দুধল ইউনিয়নের সতরাজ, দক্ষিণ দুধল, দত্তারাবাদ, কবিরাজ,চাটরা, সরশী গ্রামের হাজার হাজার মানুষ প্রতিদিন এই সেতু দিয়ে উপজেলা শহরে যাতায়াত করেন।সাত গ্রামের একমাত্র সংযোগ সেতুটির মাঝখানের লোহার পিলার ভেঙে একদিকে হেলে পড়েছে।যে কোন সময় দূর্ঘটনার কবলে পড়তে পারে এলাকার মানুষ।

প্রতিদিন এই সেতু দিয়ে দক্ষিণ দুধল সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়, দুধল ইসলামীয়া কামিল মাদ্রাসা, ডি কে পি মাধ্যমিক বিদ্যালয়, মডেল স্কুল, দত্তারাবাদ প্রাথমিক বিদ্যালয় চাটরা মাধ্যমিক বিদ্যালয়, সতরাজ সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের কোমলমতি শিশুসহ স্কুল কলেজের শিক্ষার্থীরা ও হাজার হাজার মানুষ প্রতিদিন যাতায়াত করেন।

স্থানীয়দের অভিযোগ, সেতুটির কারনে অনেকে আহত হয়েছেন।প্রায়ই রাতের আঁধারে অটোরিকশা, মোটরসাইকেল চালক পড়ে গিয়ে দূর্ঘটনার শিকার হচ্ছেন।হঠাৎ কেউ অসুস্থ হলে সেতু দিয়ে অ্যাম্বুলেন্স আসতে না পারায় রোগীদের চিকিৎসায় চরম ভোগান্তি পোহাতে হয়।

দুধল ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান গোলাম মোর্শেদ খান উজ্জ্বল বলেন, প্রায় ছয় বছর আগে সেতুটির মাঝখান থেকে ভেঙে যায়।সেতুটি এখন চলাচলের অনুপযোগী হয়ে পড়েছে। দূর্ঘটনা এড়াতে দ্রুত নির্মান করা ছাড়া আর কোন উপায় নেই।

তিনি আরো বলেন, সংশ্লিষ্ট দপ্তরগুলোতে অনেক চেষ্টা করেও এখনো পর্যন্ত কোন সুফল পাইনি।তবে আমি আমার সাধ্য মতো চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি। এ বিষয়ে বাকেরগঞ্জ উপজেলা প্রকৌশলী আবুল খায়ের মিয়া বলেন, চলতি বছরের বাজেটে সেতুটি সংস্কারের জন্য বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে।বরাদ্দ পেলেই সেতুটির ভাঙ্গা ও দেবে যাওয়া অংশ মেরামত করা হবে।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

বরিশালে সেতুর জন্য হাজার মানুষের দুর্ভোগ

আপডেট সময় : ০৫:৫১:০৬ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ৪ জুলাই ২০২৩

বরিশাল প্রতিনিধিঃ

বরিশালের বাকেরগঞ্জ উপজেলার দুধল ইউনিয়নের সতরাজ বাজার সংলগ্ন মাদ্রাসা খালের উপর নির্মিত সেতুটি এখন হাজার মানুষের দুর্ভোগের কারন হয়ে দাঁড়িয়েছে। ভুক্তভোগীরা বলছেন সংস্কারের অভাবে সেতুটি এখন মরন ফাঁদে পরিনত হয়েছে।

স্টার নিউজ টুয়েন্টি ফোরের অনুসন্ধানে জানা যায়, দুধল ইউনিয়নের সতরাজ, দক্ষিণ দুধল, দত্তারাবাদ, কবিরাজ,চাটরা, সরশী গ্রামের হাজার হাজার মানুষ প্রতিদিন এই সেতু দিয়ে উপজেলা শহরে যাতায়াত করেন।সাত গ্রামের একমাত্র সংযোগ সেতুটির মাঝখানের লোহার পিলার ভেঙে একদিকে হেলে পড়েছে।যে কোন সময় দূর্ঘটনার কবলে পড়তে পারে এলাকার মানুষ।

প্রতিদিন এই সেতু দিয়ে দক্ষিণ দুধল সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়, দুধল ইসলামীয়া কামিল মাদ্রাসা, ডি কে পি মাধ্যমিক বিদ্যালয়, মডেল স্কুল, দত্তারাবাদ প্রাথমিক বিদ্যালয় চাটরা মাধ্যমিক বিদ্যালয়, সতরাজ সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের কোমলমতি শিশুসহ স্কুল কলেজের শিক্ষার্থীরা ও হাজার হাজার মানুষ প্রতিদিন যাতায়াত করেন।

স্থানীয়দের অভিযোগ, সেতুটির কারনে অনেকে আহত হয়েছেন।প্রায়ই রাতের আঁধারে অটোরিকশা, মোটরসাইকেল চালক পড়ে গিয়ে দূর্ঘটনার শিকার হচ্ছেন।হঠাৎ কেউ অসুস্থ হলে সেতু দিয়ে অ্যাম্বুলেন্স আসতে না পারায় রোগীদের চিকিৎসায় চরম ভোগান্তি পোহাতে হয়।

দুধল ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান গোলাম মোর্শেদ খান উজ্জ্বল বলেন, প্রায় ছয় বছর আগে সেতুটির মাঝখান থেকে ভেঙে যায়।সেতুটি এখন চলাচলের অনুপযোগী হয়ে পড়েছে। দূর্ঘটনা এড়াতে দ্রুত নির্মান করা ছাড়া আর কোন উপায় নেই।

তিনি আরো বলেন, সংশ্লিষ্ট দপ্তরগুলোতে অনেক চেষ্টা করেও এখনো পর্যন্ত কোন সুফল পাইনি।তবে আমি আমার সাধ্য মতো চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি। এ বিষয়ে বাকেরগঞ্জ উপজেলা প্রকৌশলী আবুল খায়ের মিয়া বলেন, চলতি বছরের বাজেটে সেতুটি সংস্কারের জন্য বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে।বরাদ্দ পেলেই সেতুটির ভাঙ্গা ও দেবে যাওয়া অংশ মেরামত করা হবে।