ঢাকা ০৯:৩৬ অপরাহ্ন, সোমবার, ২২ এপ্রিল ২০২৪, ৯ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

বরিশাল সিটি নির্বাচনে ১০প্লাটুন বিজিবি মোতায়েনের পরিকল্পনা

নিউজ ডেস্ক
  • আপডেট সময় : ০৮:৪০:৫৬ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২ জুন ২০২৩
  • / ৪৩২ বার পড়া হয়েছে

মোঃ মশিউর রহমান সুমন,  মেহেন্দীগঞ্জ প্রতিনিধিঃ

আগামী ১২ই জুন বরিশাল সিটি কর্পোরেশন (বিসিসি) নির্বাচনের ভোট গ্রহন অনুষ্ঠিত হবে। সেদিন ভোটাররা তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করে মেয়র-কাউন্সিলর পদে তাদের পছন্দের প্রার্থীকে বিজয়ী করবেন।
আর এ কার্যক্রম অবাধ সুষ্ট ও শান্তিপুর্ন পরিবেশে অনুষ্ঠানের লক্ষে নির্বাচন কমিশনের নির্দেশনা মোতাবেক সব ব্যবস্থা গ্রহন করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন বরিশালের জেলা প্রশাসক মোঃ জাহাঙ্গীর হোসেন।
তিনি বলেন, মনোনয়নপত্র দাখিল কার্যক্রমের সময় আমাদের তিনজন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট দায়িত্ব পালন করেছে এবং এখন আচরণবিধি প্রতিপালনের জন্য ৩০টি ওয়ার্ডে মোট ১০জন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট তাদের দায়িত্ব পালন করছে। এর পাশাপাশি নির্বাচনকালীন তিনদিনের জন্য ৩০জন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট দায়িত্ব পালন করবে এবং অতিরিক্ত আরো ১০ জন ম্যাজিস্ট্রেট বিজিবির সঙ্গে স্ট্রাইকিং ফোর্স হিসেবে দায়িত্ব পালন করবে।

জেলা প্রশাসক বলেন, এখানে সাত প্লাটুন বিজিবি নির্বাচন কমিশন থেকে মোতায়েনের জন্য সিদ্বান্ত হয়েছে। তবে আমরা আরও অতিরিক্ত তিন প্লাটুন বিজিবি মোতায়েনের জন্য চিটি দিয়েছি।
আমরা বিস্বাস করি এখানে আইন শৃঙ্খলার অবস্থা ভালো রয়েছে এর এ অবস্থাটি শেষ পযন্ত অব্যাহত থাকবে। আশা করি উৎসবমুখর পরিবেশে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে এবং নির্বাচন সবার কাছে গ্রহনযোগ্য হবে।

এদিকে বরিশাল মেট্রোপলিটন পুলিশের কমিশনার মোঃ সাইফুল ইসলাম বলেন,প্রধান নির্বাচন কিছুদিন আগে আমাদের সঙ্গে সভা করে গেছেন। সেখানে নির্বাচন কমিশনের সচিবসহ কর্মকর্তারা ছিলেন। তারা আমাদের একটি সুন্দর দিকনির্দেশনা দিয়ে গেছেন। আমরা একটা সুন্দর গ্রহনযোগ্য নির্বাচন করতে চাই।

তিনি আরো বলেন, নির্দেশনা অনুযায়ী প্রতি কেন্দ্রে চারজন ফোর্স থাকবে। তবে কিছু কিছু জায়গায় প্রয়োজনের নিরীক্ষায় আরো সংখ্যা বাড়ানো হয়েছে। ৪২ টি কেন্দ্রে যেখানে নারী ভোটার রয়েছে সেখানে আমরা নারী পুলিশ সদস্য দিচ্ছি। মহিলা কেন্দ্রে নারী আনসার সদস্যের সংখ্যাও বাড়ানো হবে।

এছাড়া প্রতিটি স্ট্রাইকিং ও মোবাইল ফোর্সের সঙ্গে আমর্ড পুলিশ ব্যাটালিয়ান সদস্যরাও থাকবে। অপরদিকে পরিপত্রে আমাদের প্রায় সাত প্লাটুন বিজিবি থাকার কথা বলা হয়েছে। যারা স্ট্রাইকিং ফোর্স হিসেবে কাজ করবে। তারা হয়তো দুই একদিনের মধ্যে চলে আসবে এবং কিভাবে কাজ করবে তার প্ল্যানিং করবে।

মানুষের ভীত হওয়ার কোন কারন নেই জানিয়ে পুলিশ কমিশনার বলেন, এক কথায় ভোটারটা যাতে নিশ্চিন্তে নির্বিঘ্নে ভোট কেন্দ্রে আসতে পারে সে ব্যবস্থা আমরা টোটালি করেছি। এখানে কোন অস্বচ্ছতা থাকবেনা। এবং কেউ আলাদা সুযোগ সুবিধা পাবেনা।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

আপলোডকারীর তথ্য

বরিশাল সিটি নির্বাচনে ১০প্লাটুন বিজিবি মোতায়েনের পরিকল্পনা

আপডেট সময় : ০৮:৪০:৫৬ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২ জুন ২০২৩

মোঃ মশিউর রহমান সুমন,  মেহেন্দীগঞ্জ প্রতিনিধিঃ

আগামী ১২ই জুন বরিশাল সিটি কর্পোরেশন (বিসিসি) নির্বাচনের ভোট গ্রহন অনুষ্ঠিত হবে। সেদিন ভোটাররা তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করে মেয়র-কাউন্সিলর পদে তাদের পছন্দের প্রার্থীকে বিজয়ী করবেন।
আর এ কার্যক্রম অবাধ সুষ্ট ও শান্তিপুর্ন পরিবেশে অনুষ্ঠানের লক্ষে নির্বাচন কমিশনের নির্দেশনা মোতাবেক সব ব্যবস্থা গ্রহন করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন বরিশালের জেলা প্রশাসক মোঃ জাহাঙ্গীর হোসেন।
তিনি বলেন, মনোনয়নপত্র দাখিল কার্যক্রমের সময় আমাদের তিনজন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট দায়িত্ব পালন করেছে এবং এখন আচরণবিধি প্রতিপালনের জন্য ৩০টি ওয়ার্ডে মোট ১০জন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট তাদের দায়িত্ব পালন করছে। এর পাশাপাশি নির্বাচনকালীন তিনদিনের জন্য ৩০জন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট দায়িত্ব পালন করবে এবং অতিরিক্ত আরো ১০ জন ম্যাজিস্ট্রেট বিজিবির সঙ্গে স্ট্রাইকিং ফোর্স হিসেবে দায়িত্ব পালন করবে।

জেলা প্রশাসক বলেন, এখানে সাত প্লাটুন বিজিবি নির্বাচন কমিশন থেকে মোতায়েনের জন্য সিদ্বান্ত হয়েছে। তবে আমরা আরও অতিরিক্ত তিন প্লাটুন বিজিবি মোতায়েনের জন্য চিটি দিয়েছি।
আমরা বিস্বাস করি এখানে আইন শৃঙ্খলার অবস্থা ভালো রয়েছে এর এ অবস্থাটি শেষ পযন্ত অব্যাহত থাকবে। আশা করি উৎসবমুখর পরিবেশে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে এবং নির্বাচন সবার কাছে গ্রহনযোগ্য হবে।

এদিকে বরিশাল মেট্রোপলিটন পুলিশের কমিশনার মোঃ সাইফুল ইসলাম বলেন,প্রধান নির্বাচন কিছুদিন আগে আমাদের সঙ্গে সভা করে গেছেন। সেখানে নির্বাচন কমিশনের সচিবসহ কর্মকর্তারা ছিলেন। তারা আমাদের একটি সুন্দর দিকনির্দেশনা দিয়ে গেছেন। আমরা একটা সুন্দর গ্রহনযোগ্য নির্বাচন করতে চাই।

তিনি আরো বলেন, নির্দেশনা অনুযায়ী প্রতি কেন্দ্রে চারজন ফোর্স থাকবে। তবে কিছু কিছু জায়গায় প্রয়োজনের নিরীক্ষায় আরো সংখ্যা বাড়ানো হয়েছে। ৪২ টি কেন্দ্রে যেখানে নারী ভোটার রয়েছে সেখানে আমরা নারী পুলিশ সদস্য দিচ্ছি। মহিলা কেন্দ্রে নারী আনসার সদস্যের সংখ্যাও বাড়ানো হবে।

এছাড়া প্রতিটি স্ট্রাইকিং ও মোবাইল ফোর্সের সঙ্গে আমর্ড পুলিশ ব্যাটালিয়ান সদস্যরাও থাকবে। অপরদিকে পরিপত্রে আমাদের প্রায় সাত প্লাটুন বিজিবি থাকার কথা বলা হয়েছে। যারা স্ট্রাইকিং ফোর্স হিসেবে কাজ করবে। তারা হয়তো দুই একদিনের মধ্যে চলে আসবে এবং কিভাবে কাজ করবে তার প্ল্যানিং করবে।

মানুষের ভীত হওয়ার কোন কারন নেই জানিয়ে পুলিশ কমিশনার বলেন, এক কথায় ভোটারটা যাতে নিশ্চিন্তে নির্বিঘ্নে ভোট কেন্দ্রে আসতে পারে সে ব্যবস্থা আমরা টোটালি করেছি। এখানে কোন অস্বচ্ছতা থাকবেনা। এবং কেউ আলাদা সুযোগ সুবিধা পাবেনা।