ঢাকা ০৩:১৯ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১৪ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::
হিলি বন্দরে আমদানি-রপ্তানি বন্ধ বিরামপুর উপজেলায় ১০৩ বছরের বৃদ্ধা স্মার্ট জাতীয় পরিচয়পত্র নিলেন নাতি বৌয়ের কাঁধে ভর করে কিশোর কিশোরীর উজ্জ্বল ভবিষ্যত ও আলোকিত জীবন হিলিতে চেয়ারম্যান কাপ ফুটবল টুর্ণামেন্ট এর উদ্বোধন জয়পুরহাটে পুলিশ সুপার ম্যারাথন ও পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠিত পাঁচবিবিতে কোকতারা আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয়ে জানালার গ্রিল ভেঙ্গে দুধর্ষ চুরি ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় ট্রাক্টর দূর্ঘটনায় নিহত ২ পাঁচবিবিতে বুড়াবুড়ির মাজারে ২৫তম বাৎসরিক ওয়াজ মাহফিলের প্রস্তুতি সভা হিলি সীমান্তে দুই বাংলার আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালিত হরিপুরে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালিত

বিএনপিকে ফের সন্ত্রাসী সংগঠন বলল কানাডার আদালত

নিউজ ডেস্ক
  • আপডেট সময় : ০৯:৩৫:৪৯ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ১ অগাস্ট ২০২৩
  • / ৩৭০ বার পড়া হয়েছে

 

বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দলকে (বিএনপি) সন্ত্রাসী সংগঠন হিসেবে অভিহিত করেছেন কানাডার আদালত। এ নিয়ে অভিবাসনসংক্রান্ত মামলার রায়ে কানাডার আদালতে বিএনপিকে পঞ্চমবারের মতো সন্ত্রাসী সংগঠন হিসেবে আখ্যায়িত করা হলো।

১৫ জুন টরন্টোর আদালতের রায় পর্যালোচনা করে দেখা যায়, মোহাম্মদ জিপসেদ ইবনে হক নামে এক বিএনপির এক কর্মী কানাডায় রাজনৈতিক আশ্রয় প্রার্থনা করেন। যা কানাডার ফেডারেল কোর্ট নাকচ করে দেন।

জিপসেদ ইবনে হক রাজনৈতিক আশ্রয় প্রার্থনা নাকচ করে দেওয়ার বিরুদ্ধে জুডিশিয়াল রিভিউ দায়ের করেছিলেন। সন্ত্রাসী দলের সদস্য অভিহিত করে তার সেই রিভিউটিও খারিজ করে দেয়া হয়।

রায়ে বলা হয়, রাজনৈতিক আশ্রয় প্রার্থনাকারী বিএনপির সঙ্গে যুক্ত ছিলেন। বলপ্রয়োগ ও সন্ত্রাসের মাধ্যমে বাংলাদেশে গণতান্ত্রিক সরকারকে উৎখাতের চেষ্টা করছে বিএনপি।

রায়ে আরও বলা হয়, বাংলাদেশে ক্ষমতাসীন দলের রাজনৈতিক প্রতিহিংসার শিকার হয়েছেন বলে দাবি করে কানাডায় রাজনৈতিক আশ্রয় চেয়েছিলেন মোহাম্মদ জিপসেদ ইবনে হক। আবেদনকারী ২০১১ থেকে ২০১৫ সাল পর্যন্ত বিএনপির সদস্য ছিলেন বলে দাবি করেছেন।

কানাডার অভিবাসন কর্তৃপক্ষ মনে করে, বিএনপি বলপ্রয়োগ এবং নাশকতার মাধ্যমে আওয়ামী লীগ সরকারকে ক্ষমতাচ্যুত করার চেষ্টা করেছে।বিএনপি একটি সন্ত্রাসী দল।

কানাডার ফেডারেল কোর্টের রায়ের মানদণ্ড হিসেবে ২০১৮ সালে মাসুদ রানা ও ২০২২ সালে সেলিম নামে বিএনপির অপর দুই কর্মীর রাজনৈতিক আশ্রয়ের আবেদন নাকচ করার প্রসঙ্গ টানা হয়। তখন ওই দুই আবেদনকারীর রায়েও বিএনপিকে সন্ত্রাসী সংগঠন হিসেবে অভিহিত করা হয়েছিল।

এর আগে ২০১৭ সালে ঢাকার মিরপুরের স্বেচ্ছাসেবক দলের কর্মী পরিচয়ে কানাডায় রাজনৈতিক আশ্রয় চাওয়া মোহাম্মদ জুয়েল হোসেন গাজীর আবেদন নাকচ হয়েছিল। তখনো বিএনপিকে সন্ত্রাসী সংগঠন বলেছিলেন কানাডার আদালত।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

বিএনপিকে ফের সন্ত্রাসী সংগঠন বলল কানাডার আদালত

আপডেট সময় : ০৯:৩৫:৪৯ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ১ অগাস্ট ২০২৩

 

বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দলকে (বিএনপি) সন্ত্রাসী সংগঠন হিসেবে অভিহিত করেছেন কানাডার আদালত। এ নিয়ে অভিবাসনসংক্রান্ত মামলার রায়ে কানাডার আদালতে বিএনপিকে পঞ্চমবারের মতো সন্ত্রাসী সংগঠন হিসেবে আখ্যায়িত করা হলো।

১৫ জুন টরন্টোর আদালতের রায় পর্যালোচনা করে দেখা যায়, মোহাম্মদ জিপসেদ ইবনে হক নামে এক বিএনপির এক কর্মী কানাডায় রাজনৈতিক আশ্রয় প্রার্থনা করেন। যা কানাডার ফেডারেল কোর্ট নাকচ করে দেন।

জিপসেদ ইবনে হক রাজনৈতিক আশ্রয় প্রার্থনা নাকচ করে দেওয়ার বিরুদ্ধে জুডিশিয়াল রিভিউ দায়ের করেছিলেন। সন্ত্রাসী দলের সদস্য অভিহিত করে তার সেই রিভিউটিও খারিজ করে দেয়া হয়।

রায়ে বলা হয়, রাজনৈতিক আশ্রয় প্রার্থনাকারী বিএনপির সঙ্গে যুক্ত ছিলেন। বলপ্রয়োগ ও সন্ত্রাসের মাধ্যমে বাংলাদেশে গণতান্ত্রিক সরকারকে উৎখাতের চেষ্টা করছে বিএনপি।

রায়ে আরও বলা হয়, বাংলাদেশে ক্ষমতাসীন দলের রাজনৈতিক প্রতিহিংসার শিকার হয়েছেন বলে দাবি করে কানাডায় রাজনৈতিক আশ্রয় চেয়েছিলেন মোহাম্মদ জিপসেদ ইবনে হক। আবেদনকারী ২০১১ থেকে ২০১৫ সাল পর্যন্ত বিএনপির সদস্য ছিলেন বলে দাবি করেছেন।

কানাডার অভিবাসন কর্তৃপক্ষ মনে করে, বিএনপি বলপ্রয়োগ এবং নাশকতার মাধ্যমে আওয়ামী লীগ সরকারকে ক্ষমতাচ্যুত করার চেষ্টা করেছে।বিএনপি একটি সন্ত্রাসী দল।

কানাডার ফেডারেল কোর্টের রায়ের মানদণ্ড হিসেবে ২০১৮ সালে মাসুদ রানা ও ২০২২ সালে সেলিম নামে বিএনপির অপর দুই কর্মীর রাজনৈতিক আশ্রয়ের আবেদন নাকচ করার প্রসঙ্গ টানা হয়। তখন ওই দুই আবেদনকারীর রায়েও বিএনপিকে সন্ত্রাসী সংগঠন হিসেবে অভিহিত করা হয়েছিল।

এর আগে ২০১৭ সালে ঢাকার মিরপুরের স্বেচ্ছাসেবক দলের কর্মী পরিচয়ে কানাডায় রাজনৈতিক আশ্রয় চাওয়া মোহাম্মদ জুয়েল হোসেন গাজীর আবেদন নাকচ হয়েছিল। তখনো বিএনপিকে সন্ত্রাসী সংগঠন বলেছিলেন কানাডার আদালত।