ঢাকা ০২:২৬ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১৪ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::
হিলি বন্দরে আমদানি-রপ্তানি বন্ধ বিরামপুর উপজেলায় ১০৩ বছরের বৃদ্ধা স্মার্ট জাতীয় পরিচয়পত্র নিলেন নাতি বৌয়ের কাঁধে ভর করে কিশোর কিশোরীর উজ্জ্বল ভবিষ্যত ও আলোকিত জীবন হিলিতে চেয়ারম্যান কাপ ফুটবল টুর্ণামেন্ট এর উদ্বোধন জয়পুরহাটে পুলিশ সুপার ম্যারাথন ও পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠিত পাঁচবিবিতে কোকতারা আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয়ে জানালার গ্রিল ভেঙ্গে দুধর্ষ চুরি ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় ট্রাক্টর দূর্ঘটনায় নিহত ২ পাঁচবিবিতে বুড়াবুড়ির মাজারে ২৫তম বাৎসরিক ওয়াজ মাহফিলের প্রস্তুতি সভা হিলি সীমান্তে দুই বাংলার আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালিত হরিপুরে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালিত

বিরামপুরে তাল শাঁস বিক্রির ধুম 

নিউজ ডেস্ক
  • আপডেট সময় : ১১:০৬:৩৮ অপরাহ্ন, বুধবার, ২৪ মে ২০২৩
  • / ৩৮৬ বার পড়া হয়েছে

ইব্রাহীম মিঞা বিরামপুর (দিনাজপুর) প্রতিনিধিঃ

দিনাজপুর জেলার বিরামপুর উপজেলায় হাট-বাজারসহ রাস্তার মোড়ে তাল শাঁস বিক্রির ধুম পড়েছে। চলতি মৌসুমে শহর ও গ্রামাঞ্চলের হাট বাজারগুলোতে অন্যান্য মৌসুমী ফলের মধ্যে সুস্বাদু তাল শাঁস ক্রয়ের জন্য তাল শাঁস বিক্রেতার দোকানে ক্রেতাদের উপচেপড়া ভিড় লক্ষ্য করা গেছে । চলতি মৌসুমি বিক্রেতারা বিভিন্ন এলাকার তাল গাছ থেকে কচি তাল নিয়ে এসে তাল শাঁস বিক্রির জন্য হাট-বাজারসহ রাস্তার মোড়ে দোকান নিয়ে বসে। আর জৈষ্ঠ্যের গরমে অস্থির ক্রেতারা তাল শাঁস খেয়ে স্বস্তি পাওয়ার চেষ্টা করে।

বিরামপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে যেতে কলাবাগান মোড়ে তাল শাঁস বিক্রেতা রনি (২৮) বলেন, বিভিন্ন গ্রাম থেকে অপরিপক্ক তাল নিয়ে সেই তাল থেকে শাঁস বের করে প্রতিটি তাল শাঁস ৫ টাকা করে ১ হালি(৪পিস) ২০ টাকা বিক্রি করছি। গত বছর ১০ থেকে ১৫ টাকা হালি দরে বিক্রি করলেও এবার তালের দাম বৃদ্ধি ও পরিবহন খরচ বেড়ে যাওয়ায় বেশি দামে শাঁস বিক্রি করতে হচ্ছে। আমি ১৫ বছর ধরে এই মৌসুমী তাল শাঁস বিক্রি করি অন্য সময় রাজমিস্ত্রীর সাথে কাজ করি।

সুস্বাদু এই তাল শাঁসের চাহিদার কারণে শহরের বিভিন্ন ও গ্রামের মোড়ে মোড়ে এবং গ্রামাঞ্চলের হাট-বাজারে এখন তাল শাঁস বিক্রেতার দোকান লক্ষ্য করা যাচ্ছে। এতে মৌসুমি বিক্রেতারা বাড়তি আয় করছেন এবং ক্রেতারাও স্বস্তিতে স্বাদ গ্রহণ করতে পারছেন।

বিরামপুর উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা: আবদুল্লাহ আল ইফরান জানান, তালের শাঁস শরীরের ইলেক্ট্রোলাইট (সোডিয়াম ও পটাসিয়াম) ভারসাম্য ঠিক রাখতে সহায়তা করে। গরমে শরীরের বাড়তি পানির চাহিদা মেটাতে সাহায্য করে এই ফল। আয়রন থাকে বলে রক্তশূন্যতা দূর করতে সহায়তা করে। এছাড়া তালের শাঁসে ভিটামিন এ, ভিটামিন সি, বি কমপ্লেক্স এবং ক্যালসিয়াম রয়েছে যা দৃষ্টিশক্তি রোগপ্রতিরোধ ক্ষমতা ও শারীরিক গঠনে ভূমিকা রাখে।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

আপলোডকারীর তথ্য

বিরামপুরে তাল শাঁস বিক্রির ধুম 

আপডেট সময় : ১১:০৬:৩৮ অপরাহ্ন, বুধবার, ২৪ মে ২০২৩

ইব্রাহীম মিঞা বিরামপুর (দিনাজপুর) প্রতিনিধিঃ

দিনাজপুর জেলার বিরামপুর উপজেলায় হাট-বাজারসহ রাস্তার মোড়ে তাল শাঁস বিক্রির ধুম পড়েছে। চলতি মৌসুমে শহর ও গ্রামাঞ্চলের হাট বাজারগুলোতে অন্যান্য মৌসুমী ফলের মধ্যে সুস্বাদু তাল শাঁস ক্রয়ের জন্য তাল শাঁস বিক্রেতার দোকানে ক্রেতাদের উপচেপড়া ভিড় লক্ষ্য করা গেছে । চলতি মৌসুমি বিক্রেতারা বিভিন্ন এলাকার তাল গাছ থেকে কচি তাল নিয়ে এসে তাল শাঁস বিক্রির জন্য হাট-বাজারসহ রাস্তার মোড়ে দোকান নিয়ে বসে। আর জৈষ্ঠ্যের গরমে অস্থির ক্রেতারা তাল শাঁস খেয়ে স্বস্তি পাওয়ার চেষ্টা করে।

বিরামপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে যেতে কলাবাগান মোড়ে তাল শাঁস বিক্রেতা রনি (২৮) বলেন, বিভিন্ন গ্রাম থেকে অপরিপক্ক তাল নিয়ে সেই তাল থেকে শাঁস বের করে প্রতিটি তাল শাঁস ৫ টাকা করে ১ হালি(৪পিস) ২০ টাকা বিক্রি করছি। গত বছর ১০ থেকে ১৫ টাকা হালি দরে বিক্রি করলেও এবার তালের দাম বৃদ্ধি ও পরিবহন খরচ বেড়ে যাওয়ায় বেশি দামে শাঁস বিক্রি করতে হচ্ছে। আমি ১৫ বছর ধরে এই মৌসুমী তাল শাঁস বিক্রি করি অন্য সময় রাজমিস্ত্রীর সাথে কাজ করি।

সুস্বাদু এই তাল শাঁসের চাহিদার কারণে শহরের বিভিন্ন ও গ্রামের মোড়ে মোড়ে এবং গ্রামাঞ্চলের হাট-বাজারে এখন তাল শাঁস বিক্রেতার দোকান লক্ষ্য করা যাচ্ছে। এতে মৌসুমি বিক্রেতারা বাড়তি আয় করছেন এবং ক্রেতারাও স্বস্তিতে স্বাদ গ্রহণ করতে পারছেন।

বিরামপুর উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা: আবদুল্লাহ আল ইফরান জানান, তালের শাঁস শরীরের ইলেক্ট্রোলাইট (সোডিয়াম ও পটাসিয়াম) ভারসাম্য ঠিক রাখতে সহায়তা করে। গরমে শরীরের বাড়তি পানির চাহিদা মেটাতে সাহায্য করে এই ফল। আয়রন থাকে বলে রক্তশূন্যতা দূর করতে সহায়তা করে। এছাড়া তালের শাঁসে ভিটামিন এ, ভিটামিন সি, বি কমপ্লেক্স এবং ক্যালসিয়াম রয়েছে যা দৃষ্টিশক্তি রোগপ্রতিরোধ ক্ষমতা ও শারীরিক গঠনে ভূমিকা রাখে।