ঢাকা ০৪:৩২ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২২ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ৯ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::
পাঁচবিবিতে বুড়াবুড়ির মাজারে ২৫তম বাৎসরিক ওয়াজ মাহফিলের প্রস্তুতি সভা হিলি সীমান্তে দুই বাংলার আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালিত হরিপুরে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালিত পাঁচবিবিতে নির্বাচনী মাঠে মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী মোছাঃ রেবেকা সুলতানা বিরামপুরে সমতল ভূমিতে বসবাসরত ৩৫০ ক্ষুদ্র নৃ- গোষ্ঠীর মাঝে বিনামূল্যে মুরগি বিতরণ পাঁচবিবিতে আবু হোসাইন হত্যা মামলায় মা-ছেলেসহ ৫ জনের মৃত্যুদণ্ড পাঁচবিবিতে বন্ধুত্বের মিলন মেলা-৯০ অনুষ্ঠিত হিলিতে দিনব্যাপি পণ্য প্রদর্শর্নী ও পিঠা উৎসব অনুষ্ঠিত পাঁচবিবিতে রেলওয়ের সম্পত্তি লীজকে কেন্দ্র করে সংবাদ সম্মেলন পাঁচবিবিতে বণিক সমিতির ৫ম সাধারণ সভায় আহবায়ক কমিটি ঘোষনা একাংশের আপত্তি

বিরামপুরে বেড়েছে সরিষার চাষ

নিউজ ডেস্ক
  • আপডেট সময় : ০১:৩৫:০১ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ১০ জানুয়ারী ২০২৪
  • / ৩১৮ বার পড়া হয়েছে

মোঃ ইব্রাহীম মিঞা, বিরামপুর (দিনাজপুর) প্রতিনিধিঃ

উত্তরের জনপদ দিনাজপুরের বিরামপুরে মাঠে মাঠে হলুদের সমাহার, প্রকৃতি সেজেছে হলুদ সাজে, প্রাণ জুড়িয়ে যাচ্ছে প্রকৃতি প্রেমিদের। মাঠে-ঘাটে, গ্রাম-গঞ্জে আর রাস্তায় সরিষার ফুলের সুভাষ ছড়াচ্ছে, মুগ্ধ হচ্ছে পথচারীরা।
দেশে ভেষজ তেলের চাহিদার তুলনায় উৎপাদন কম। এসব ভেষজ তেল আমদানি করতে হয় বেশির ভাগ দেশের বাহির থেকে। বাহির থেকে আমদানিকৃত তেলের মূল্য বৃদ্ধি দিন দিন বেড়েই চলছে।দেশি বাজারে সয়াবিন, সরিষা, পামেলসহ বিভিন্ন প্রকার তেলের দাম বৃদ্ধি পাওয়ায় তেলের দাম স্বাভাবিক রাখতে এবং চাহিদা মেটাতে দিনাজপুরের বিরামপুর উপজেলায় বেড়েছে সরিষার চাষ।আমন ধান কাটাই- মাড়াইয়ের পর জমি ৩ মাস ফেলে না রেখে বাড়তি আয় করতে একই জমিতে সরিষা চাষে ঝুঁকছেন এখানকার কৃষকরা। কৃষকদের সরিষা চাষে উৎসাহিত করতে বিনামূল্যে সার ও বীজ দেয়া হয়েছে বলে জানান উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা ফিরোজ আহমেদ।
বিরামপুর উপজেলার প্রতিটি ইউনিয়নে আশানুরূপ সরিষার আবাদ হয়েছে। উপজেলার জোতবানী ইউনিয়নের একইর মঙ্গলপুর গ্রামের কৃষক হাফিজুল ইসলাম বলেন, এক বিঘা জমিতে সরিষা চাষ করতে খরচ হয় তিন হাজার থেকে চার হাজার টাকা। প্রতি বিঘায় সরিষা উৎপাদন হয়ে থাকে ৬ থেকে ৭ মণ। সরিষা চাষে উপযোগী আবওহায়া ভালো থাকায় ভালো ফলনের আশা করছেন তিনি। তবে উৎপাদন খরচ কম ও দাম ভালো পাওয়ায় সরিষা চাষে ঝুঁকছেন এসব এলাকার কৃষকেরা।
বিরামপুর উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা ফিরোজ আহমেদ বলেন,কৃষকদের সরিষা চাষে উৎসাহিত করতে কৃষি অফিস থেকে মোট ৩ হাজার ৭০০ জন কৃষককে বিনামূল্যে সরিষার বীজ ও সার প্রদান করা হয়েছে।অন্যদিকে অন্য ফসলের তুলনায় সল্প সময়ে লাভজনক হওয়ায় কৃষকেরা দিন দিন সরিষা চাষের দিকে ঝুঁকছেন।বিরামপুর উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ কর্মকতা জাহিদুল ইসলাম ইলিয়াস বলেন,চলতি মৌসুমে বিরামপুর উপজেলায় ১ হাজার ৭৬০ হেক্টর জমিতে সরিষা আবাদের লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়েছে। তবে ১ হাজার ৮৪৫ হেক্টর জমিতে সরিষার চাষ করা হয়েছে, যা লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে ৮৫ হেক্টর জমিতে বেশি আবাদ করা হয়েছে।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

বিরামপুরে বেড়েছে সরিষার চাষ

আপডেট সময় : ০১:৩৫:০১ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ১০ জানুয়ারী ২০২৪

মোঃ ইব্রাহীম মিঞা, বিরামপুর (দিনাজপুর) প্রতিনিধিঃ

উত্তরের জনপদ দিনাজপুরের বিরামপুরে মাঠে মাঠে হলুদের সমাহার, প্রকৃতি সেজেছে হলুদ সাজে, প্রাণ জুড়িয়ে যাচ্ছে প্রকৃতি প্রেমিদের। মাঠে-ঘাটে, গ্রাম-গঞ্জে আর রাস্তায় সরিষার ফুলের সুভাষ ছড়াচ্ছে, মুগ্ধ হচ্ছে পথচারীরা।
দেশে ভেষজ তেলের চাহিদার তুলনায় উৎপাদন কম। এসব ভেষজ তেল আমদানি করতে হয় বেশির ভাগ দেশের বাহির থেকে। বাহির থেকে আমদানিকৃত তেলের মূল্য বৃদ্ধি দিন দিন বেড়েই চলছে।দেশি বাজারে সয়াবিন, সরিষা, পামেলসহ বিভিন্ন প্রকার তেলের দাম বৃদ্ধি পাওয়ায় তেলের দাম স্বাভাবিক রাখতে এবং চাহিদা মেটাতে দিনাজপুরের বিরামপুর উপজেলায় বেড়েছে সরিষার চাষ।আমন ধান কাটাই- মাড়াইয়ের পর জমি ৩ মাস ফেলে না রেখে বাড়তি আয় করতে একই জমিতে সরিষা চাষে ঝুঁকছেন এখানকার কৃষকরা। কৃষকদের সরিষা চাষে উৎসাহিত করতে বিনামূল্যে সার ও বীজ দেয়া হয়েছে বলে জানান উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা ফিরোজ আহমেদ।
বিরামপুর উপজেলার প্রতিটি ইউনিয়নে আশানুরূপ সরিষার আবাদ হয়েছে। উপজেলার জোতবানী ইউনিয়নের একইর মঙ্গলপুর গ্রামের কৃষক হাফিজুল ইসলাম বলেন, এক বিঘা জমিতে সরিষা চাষ করতে খরচ হয় তিন হাজার থেকে চার হাজার টাকা। প্রতি বিঘায় সরিষা উৎপাদন হয়ে থাকে ৬ থেকে ৭ মণ। সরিষা চাষে উপযোগী আবওহায়া ভালো থাকায় ভালো ফলনের আশা করছেন তিনি। তবে উৎপাদন খরচ কম ও দাম ভালো পাওয়ায় সরিষা চাষে ঝুঁকছেন এসব এলাকার কৃষকেরা।
বিরামপুর উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা ফিরোজ আহমেদ বলেন,কৃষকদের সরিষা চাষে উৎসাহিত করতে কৃষি অফিস থেকে মোট ৩ হাজার ৭০০ জন কৃষককে বিনামূল্যে সরিষার বীজ ও সার প্রদান করা হয়েছে।অন্যদিকে অন্য ফসলের তুলনায় সল্প সময়ে লাভজনক হওয়ায় কৃষকেরা দিন দিন সরিষা চাষের দিকে ঝুঁকছেন।বিরামপুর উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ কর্মকতা জাহিদুল ইসলাম ইলিয়াস বলেন,চলতি মৌসুমে বিরামপুর উপজেলায় ১ হাজার ৭৬০ হেক্টর জমিতে সরিষা আবাদের লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়েছে। তবে ১ হাজার ৮৪৫ হেক্টর জমিতে সরিষার চাষ করা হয়েছে, যা লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে ৮৫ হেক্টর জমিতে বেশি আবাদ করা হয়েছে।