ঢাকা ০৮:৪১ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১১ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::
পাঁচবিবিতে কোকতারা আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয়ে জানালার গ্রিল ভেঙ্গে দুধর্ষ চুরি ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় ট্রাক্টর দূর্ঘটনায় নিহত ২ পাঁচবিবিতে বুড়াবুড়ির মাজারে ২৫তম বাৎসরিক ওয়াজ মাহফিলের প্রস্তুতি সভা হিলি সীমান্তে দুই বাংলার আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালিত হরিপুরে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালিত পাঁচবিবিতে নির্বাচনী মাঠে মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী মোছাঃ রেবেকা সুলতানা বিরামপুরে সমতল ভূমিতে বসবাসরত ৩৫০ ক্ষুদ্র নৃ- গোষ্ঠীর মাঝে বিনামূল্যে মুরগি বিতরণ পাঁচবিবিতে আবু হোসাইন হত্যা মামলায় মা-ছেলেসহ ৫ জনের মৃত্যুদণ্ড পাঁচবিবিতে বন্ধুত্বের মিলন মেলা-৯০ অনুষ্ঠিত হিলিতে দিনব্যাপি পণ্য প্রদর্শর্নী ও পিঠা উৎসব অনুষ্ঠিত

মানব সম্পদ ব্যাবস্থাপনা বিভাগের উন্নয়ন কর্মকান্ডের উদ্ভোধন করেছেন উপাচার্য

নিউজ ডেস্ক
  • আপডেট সময় : ০৫:৪৫:৩০ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১ জুন ২০২৩
  • / ৫৪২ বার পড়া হয়েছে

জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয়ের মানব সম্পদ ব্যাবস্থাপনা বিভাগের উন্নয়ন কর্মকান্ডের উদ্ভোধন করেছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ড.সৌমিত্র শেখর দে। বৃহস্পতিবার ০১ জুন এ উন্নয়ন কর্মকান্ডের উদ্ভোদন করেন৷

বিশ্ববিদ্যালয় একটি জ্ঞান সৃষ্টির জায়গা যেখান থেকে নতুন কিছু শিখার মাধ্যমে, রিসার্সের মাধ্যমে নতুন নতুন জ্ঞান সৃষ্টি হয়। এই জ্ঞান সৃষ্টির জন্য প্রয়োজন সুন্দর একটি পরিবেশ। ঠিক তেমনি গতকাল জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ড. সৌমিত্র শেখর “মানব সম্পদ ব্যবস্থাপনা” বিভাগের উন্নয়ন কাজের উদ্ভোধন ও পরিদর্শন করতে গিয়েছিলেন। সেখানে যেয়ে ক্লাস রুম গুলোর পরিবর্তন সহ ডিপার্টমেন্টের নানা পরিবর্তন যেমন: ফুলের বাগান, ফিল্টার করা পানির ব্যবস্থা, প্রজেক্টরের মাধ্যমে ক্লাসের ব্যবস্থা, ক্লাসরুম ও বিভাগীয় প্রধানের রুম সুন্দর করে সাজানোর বিষয় গুলো দেখে মুগ্ধ হন এবং উনি বলেন “এই শিক্ষার্থী বান্ধব ডিপার্টমেন্টকে আমরা রোল মডেল হিসেবে নিতে পারি”

উপাচার্য মানব সম্পদ ব্যবস্থাপনা বিভাগ নিয়ে বলেন “জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয়ের মানব সম্পদ ব্যবস্থাপনা বিভাগ ইতিমধ্যেই একটি হৃদ্ধ বিভাগ হিসেবে পরিচিত লাভ করেছে। এই বিভাগের শিক্ষক মন্ডলিদের আন্তরিকতা এবং জ্ঞানের ব্যপ্তি এবং গভীরতা দিয়ে ছাত্রছাত্রীদের মধ্যে মানব সম্পদ কী করে আর ও বেশি আমাদের জাতীয় ভাবে ও আন্তর্জাতিক ভাবে কাজে লাগে এবং মানব সম্পদ ব্যবস্থাপনায় কী কী ভূমিকা নেওয়া যেতে পারে তা যেমন গঠন পাঠনে উঠে এসেছে এবং একি সময় তুলে ধরবার চেষ্টা করছেন গবেষণার মধ্য দিয়ে।”

২০১১ সালে ২৪ এ জানুয়ারি এই বিভাগটি যাত্রা শুরু করে এই স্বল্প সময়েই অনেক সফলতা দেখিয়েছে।

ক্লাস রুমের এই উন্নয়ন সম্পর্কে আমরা জানার জন্য মানব সম্পদ ব্যবস্থাপনা বিভাগের ১৪ তম আবর্তনের শিক্ষার্থী মুহম্মদ জুনাইদ আলম চয়ন কে জিজ্ঞেস করলে উনি বলেন “বিভাগটিতে আসলে ক্লাস রুম গুলোর নাম সিলেকশন থেকে শুরু করে ভিতরের ইন্টারিয়র ডিজাইন, ক্লাস রুমের প্রজেক্টর এবং সাউন্ড সিস্টেম, বাহিরে ফুলের বাগান এবং নিরাপত্তার জন্য সিসিটিভি ক্যামেরা, ফিল্টার করা পানি ও ছেলে মেয়েদের জন্য ওয়াশরুমের ব্যবস্থা অর্থাৎ পড়লেখা করার জন্য পরিবেশগত সব কিছুর সম্মেলনে একটি অসাধারণ ডিপার্টমেন্ট বলে আমার মনে হয়।”

আমরা ডিপার্টমেন্টর এই পরিবর্তনের সম্পর্কে জানতে যোগাযোগ করেছি ডিপার্টমেন্টটির বিভাগীয় প্রধান শ্রদ্ধেয় শিক্ষক সহোযোগী অধ্যাপক রেজুয়ান আহমেদ শুভ্রের সাথে। উনি জানান “একটি পরিবেশ মানুষকে নতুন ভাবে চিন্তা করতে শিখায়, সময়ের পরিবর্তনের পাশাপাশি পরিবেশ গত উন্নয়নও খুব প্রয়োজন শিক্ষার্থীদের পড়ালেখার মান উন্নয়নের জন্য।”

বিভাগটির এই পরিবর্তন সম্পর্কে এই বিভাগের সহকারী অধ্যাপক সাজন সাহা বলেন “বিভাগটির এই পরিবর্তন গুলো সম্ভব হয়েছে এই বিভাগের বিভাগীয় প্রধান সহযোগী অধ্যাপক জনাব রেজুয়ান আহমেদ শুভ্র স্যারের জন্য। উনার ডাইনামিক চিন্তা ভাবনা আজকে এই বিভাগটিকে একটি রুল মডেল হিসেবে নিয়ে গিয়েছে পরিবেশ বান্ধব এর অনন্য এক চূড়ায়। যা শিক্ষার্থীদের মানসিক বিকাশ ও জ্ঞান চর্চায় অনেক সহায়তা করবে।”

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

আপলোডকারীর তথ্য

মানব সম্পদ ব্যাবস্থাপনা বিভাগের উন্নয়ন কর্মকান্ডের উদ্ভোধন করেছেন উপাচার্য

আপডেট সময় : ০৫:৪৫:৩০ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১ জুন ২০২৩

জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয়ের মানব সম্পদ ব্যাবস্থাপনা বিভাগের উন্নয়ন কর্মকান্ডের উদ্ভোধন করেছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ড.সৌমিত্র শেখর দে। বৃহস্পতিবার ০১ জুন এ উন্নয়ন কর্মকান্ডের উদ্ভোদন করেন৷

বিশ্ববিদ্যালয় একটি জ্ঞান সৃষ্টির জায়গা যেখান থেকে নতুন কিছু শিখার মাধ্যমে, রিসার্সের মাধ্যমে নতুন নতুন জ্ঞান সৃষ্টি হয়। এই জ্ঞান সৃষ্টির জন্য প্রয়োজন সুন্দর একটি পরিবেশ। ঠিক তেমনি গতকাল জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ড. সৌমিত্র শেখর “মানব সম্পদ ব্যবস্থাপনা” বিভাগের উন্নয়ন কাজের উদ্ভোধন ও পরিদর্শন করতে গিয়েছিলেন। সেখানে যেয়ে ক্লাস রুম গুলোর পরিবর্তন সহ ডিপার্টমেন্টের নানা পরিবর্তন যেমন: ফুলের বাগান, ফিল্টার করা পানির ব্যবস্থা, প্রজেক্টরের মাধ্যমে ক্লাসের ব্যবস্থা, ক্লাসরুম ও বিভাগীয় প্রধানের রুম সুন্দর করে সাজানোর বিষয় গুলো দেখে মুগ্ধ হন এবং উনি বলেন “এই শিক্ষার্থী বান্ধব ডিপার্টমেন্টকে আমরা রোল মডেল হিসেবে নিতে পারি”

উপাচার্য মানব সম্পদ ব্যবস্থাপনা বিভাগ নিয়ে বলেন “জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয়ের মানব সম্পদ ব্যবস্থাপনা বিভাগ ইতিমধ্যেই একটি হৃদ্ধ বিভাগ হিসেবে পরিচিত লাভ করেছে। এই বিভাগের শিক্ষক মন্ডলিদের আন্তরিকতা এবং জ্ঞানের ব্যপ্তি এবং গভীরতা দিয়ে ছাত্রছাত্রীদের মধ্যে মানব সম্পদ কী করে আর ও বেশি আমাদের জাতীয় ভাবে ও আন্তর্জাতিক ভাবে কাজে লাগে এবং মানব সম্পদ ব্যবস্থাপনায় কী কী ভূমিকা নেওয়া যেতে পারে তা যেমন গঠন পাঠনে উঠে এসেছে এবং একি সময় তুলে ধরবার চেষ্টা করছেন গবেষণার মধ্য দিয়ে।”

২০১১ সালে ২৪ এ জানুয়ারি এই বিভাগটি যাত্রা শুরু করে এই স্বল্প সময়েই অনেক সফলতা দেখিয়েছে।

ক্লাস রুমের এই উন্নয়ন সম্পর্কে আমরা জানার জন্য মানব সম্পদ ব্যবস্থাপনা বিভাগের ১৪ তম আবর্তনের শিক্ষার্থী মুহম্মদ জুনাইদ আলম চয়ন কে জিজ্ঞেস করলে উনি বলেন “বিভাগটিতে আসলে ক্লাস রুম গুলোর নাম সিলেকশন থেকে শুরু করে ভিতরের ইন্টারিয়র ডিজাইন, ক্লাস রুমের প্রজেক্টর এবং সাউন্ড সিস্টেম, বাহিরে ফুলের বাগান এবং নিরাপত্তার জন্য সিসিটিভি ক্যামেরা, ফিল্টার করা পানি ও ছেলে মেয়েদের জন্য ওয়াশরুমের ব্যবস্থা অর্থাৎ পড়লেখা করার জন্য পরিবেশগত সব কিছুর সম্মেলনে একটি অসাধারণ ডিপার্টমেন্ট বলে আমার মনে হয়।”

আমরা ডিপার্টমেন্টর এই পরিবর্তনের সম্পর্কে জানতে যোগাযোগ করেছি ডিপার্টমেন্টটির বিভাগীয় প্রধান শ্রদ্ধেয় শিক্ষক সহোযোগী অধ্যাপক রেজুয়ান আহমেদ শুভ্রের সাথে। উনি জানান “একটি পরিবেশ মানুষকে নতুন ভাবে চিন্তা করতে শিখায়, সময়ের পরিবর্তনের পাশাপাশি পরিবেশ গত উন্নয়নও খুব প্রয়োজন শিক্ষার্থীদের পড়ালেখার মান উন্নয়নের জন্য।”

বিভাগটির এই পরিবর্তন সম্পর্কে এই বিভাগের সহকারী অধ্যাপক সাজন সাহা বলেন “বিভাগটির এই পরিবর্তন গুলো সম্ভব হয়েছে এই বিভাগের বিভাগীয় প্রধান সহযোগী অধ্যাপক জনাব রেজুয়ান আহমেদ শুভ্র স্যারের জন্য। উনার ডাইনামিক চিন্তা ভাবনা আজকে এই বিভাগটিকে একটি রুল মডেল হিসেবে নিয়ে গিয়েছে পরিবেশ বান্ধব এর অনন্য এক চূড়ায়। যা শিক্ষার্থীদের মানসিক বিকাশ ও জ্ঞান চর্চায় অনেক সহায়তা করবে।”