ঢাকা ০৮:৪১ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৩ মে ২০২৪, ৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::
হিলিতে আওয়ামী মৎস্যজীবী লীগের ২১ তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উদযাপন বিরামপুরে ধান, চাল ও গম ক্রয়ের শুভ উদ্বোধন করেন শিবলী সাদিক এমপি হোটেলে খেতে গিয়ে দায়িত্ব হারালেন প্রিজাইডিং কর্মকর্তা পাঁচবিবিতে খরায় লিচুর ফলন হ্রাস,বাগান মালিকের মাথায় হাত পাঁচবিবিতে ট্রাইকো কম্পোস্ট সার বাজারজাতকরণে মাঠ দিবস অনুষ্ঠিত আত্মসমর্পণের পর কারাগারে বিএনপি নেতা ইশরাক দুর্ঘটনার কবলে ইরানের প্রেসিডেন্টকে বহনকারী হেলিকপ্টার অবৈধ জুস তৈরির কারখানায় অভিযান, ১০ লাখ টাকা জরিমানা দেশ এখন মগের মুল্লুকে পরিণত হয়েছে : মির্জা ফখরুল ‘ভারত-চীনকে যুক্ত করতে পারলেই রোহিঙ্গা সংকট সমাধান সম্ভব’

সড়কের সংস্কার কাজে নিম্নমানের পাথর বালু নিয়ে আসায় ঠিকাদারের বিরুদ্ধে এলাকাবাসীর ক্ষোভ

নিউজ ডেস্ক
  • আপডেট সময় : ০৯:২২:০৭ অপরাহ্ন, সোমবার, ৯ অক্টোবর ২০২৩
  • / ৩৭৭ বার পড়া হয়েছে

দোয়ারাবাজার সুনামগঞ্জ প্রতিনিধিঃ

সুনামগঞ্জের দোয়ারাবাজার সুনামগঞ্জ সড়ক ও জনপথের ১৫ কিলোমিটার রাস্তা সংস্কার কাজ শুরু না হতেই, নিম্নমানের পাথর বালু নিয়ে আসায় এলাকা জোরে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে। রাস্তার সুরক্ষামূলক দুপাশের সাইড মেরামত কাজ এবং মাটির কাজ ইত্যাদি সহ বন্যা প্রভাবিত ভাঙা/ক্ষতিগ্রস্ত অংশ নির্মাাণের জন্য ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান- এসোসিয়েশন অব শাহজালাল বিজনেস সিষ্টেম, (এ,এস,বি,এস)৬৭/ক-সাদিপুর আবাসিক এলাকা সিলেট কতৃক ১৫ কোটি টাকা বরাদ্ধের সংস্কার কাজে নিম্নমানের পাথর, বালু উত্তোলন করায় ঠিকাদার প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে ফোঁসে উঠেছে এলাকাবাসী।
সোমবার (৯ অক্টোবর) সকাল ১১ টায় মান্নারগাও ইউনিয়নের ইউপি চেয়ারম্যান মো. ইজ্জত আলী সহ স্থানীয় নেতৃবৃন্দরা দোয়ারাবাজার- সুনামগঞ্জ সড়কের, সড়ক বিভাগ কতৃক দোয়ারাবাজার-১ প্রথম কিলোমিটার পিলার থেকে সুনামগঞ্জ ১৫ কিলোমিটার পিলার পর্যন্ত কাজের, বামন-গাও সংলগ্ন সুনামগঞ্জ ছাতক সড়কের সুরমা নদীর পাড়ে ঠিকাদার প্রতিষ্ঠানের রাখা পাথর বালু পরিদর্শন করেন।
এসময় স্থানীয়দের দাবি এই সব নিম্নমানের পাথর,বালু দিয়ে দোয়ারাবাজার সুনামগঞ্জ সড়কের সংস্কার কাজ করার চেয়ে, কাজ না করাই ভালো। এই পাথর গুলো হলো মরা পাথর। হাতে ঘষা দিলেই এই পাথর ভেঙে যায়। ১৫ কোটি টাকার কাজে ৫ কোটি টাকা ও ব্যায় হবে না। এসব নিম্নমানের মরা পাথর বালু দিয়ে সড়কের কাজ করলে। এসব মৃত পাথর ২৫-৩০ টাকা ফোটে ক্রয়-বিক্রয় হয়ে থাকে। কাজ করার আগেই রাস্তা ভেঙে যাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে বলে দাবি স্থানীয়দের।
সরেজমিনে উপস্থিত হয়ে মান্নার গাও ইউনিয়নের ইউপি চেয়ারম্যান মো. ইজ্জত আলী বলেন, এসব নিম্নমানের পাথর বালু দিয়ে কোন মতেই রাস্তার সংস্কার কাজ করা সম্ভব নয়। তারপরও যদি এসব পাথর দিয়ে রাস্তার কাজ করা হয় ঠিকাদার প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে আমরা কঠোর আন্দোলনে যাবো।
ছাত্রলীগ নেতা নুর হোসেন বলেন,, এসব টিকাদার প্রতিষ্ঠানের কারণে মাননীয় প্রধান মন্ত্রীর উন্নয়ন কাজ বাধাগ্রস্ত হচ্ছে। আমরা চাই টেকসই পাথর বালু দিয়ে রাস্তার কাজ করা হউক।
মান্নার গাও ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক আনোয়ার হোসেন বলেন, এসব নিম্নমানের পাথর বালু দিয়ে সড়কের সংস্কার কাজ এলাকাবাসী চায় না। তাই ঠিকাদার প্রতিষ্ঠান দ্রুত সময়ের মধ্যে এসব নিম্নমানের পাথর বালু সরিয়ে টেকসই পাথর বালু নিয়ে আসার জন্য। তানা হলে এলাকাবাসী ঠিকাদার প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে আন্দোলনের ডাক দিবে। এবং এসব নিম্নমানের পাথর বালু দিয়ে সড়কের কাজ করতে দেওয়া হবে না।
ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের সাইড ম্যানাজার আব্দুস শহীদ বলেন, নিম্নমানের পাথর বালু দিয়ে রাস্তার ব্লকের কাজ করলে সমস্যা হবে না।
সুনামগঞ্জ সড়ক ও জনপথ বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলীর নিকট নিম্নমানের পাথর বালু উত্তোলন প্রসঙে জানতে চাওয়া হলে তিনি বলেন, পাথর বালু দেখে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেওয়া হবে।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

সড়কের সংস্কার কাজে নিম্নমানের পাথর বালু নিয়ে আসায় ঠিকাদারের বিরুদ্ধে এলাকাবাসীর ক্ষোভ

আপডেট সময় : ০৯:২২:০৭ অপরাহ্ন, সোমবার, ৯ অক্টোবর ২০২৩

দোয়ারাবাজার সুনামগঞ্জ প্রতিনিধিঃ

সুনামগঞ্জের দোয়ারাবাজার সুনামগঞ্জ সড়ক ও জনপথের ১৫ কিলোমিটার রাস্তা সংস্কার কাজ শুরু না হতেই, নিম্নমানের পাথর বালু নিয়ে আসায় এলাকা জোরে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে। রাস্তার সুরক্ষামূলক দুপাশের সাইড মেরামত কাজ এবং মাটির কাজ ইত্যাদি সহ বন্যা প্রভাবিত ভাঙা/ক্ষতিগ্রস্ত অংশ নির্মাাণের জন্য ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান- এসোসিয়েশন অব শাহজালাল বিজনেস সিষ্টেম, (এ,এস,বি,এস)৬৭/ক-সাদিপুর আবাসিক এলাকা সিলেট কতৃক ১৫ কোটি টাকা বরাদ্ধের সংস্কার কাজে নিম্নমানের পাথর, বালু উত্তোলন করায় ঠিকাদার প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে ফোঁসে উঠেছে এলাকাবাসী।
সোমবার (৯ অক্টোবর) সকাল ১১ টায় মান্নারগাও ইউনিয়নের ইউপি চেয়ারম্যান মো. ইজ্জত আলী সহ স্থানীয় নেতৃবৃন্দরা দোয়ারাবাজার- সুনামগঞ্জ সড়কের, সড়ক বিভাগ কতৃক দোয়ারাবাজার-১ প্রথম কিলোমিটার পিলার থেকে সুনামগঞ্জ ১৫ কিলোমিটার পিলার পর্যন্ত কাজের, বামন-গাও সংলগ্ন সুনামগঞ্জ ছাতক সড়কের সুরমা নদীর পাড়ে ঠিকাদার প্রতিষ্ঠানের রাখা পাথর বালু পরিদর্শন করেন।
এসময় স্থানীয়দের দাবি এই সব নিম্নমানের পাথর,বালু দিয়ে দোয়ারাবাজার সুনামগঞ্জ সড়কের সংস্কার কাজ করার চেয়ে, কাজ না করাই ভালো। এই পাথর গুলো হলো মরা পাথর। হাতে ঘষা দিলেই এই পাথর ভেঙে যায়। ১৫ কোটি টাকার কাজে ৫ কোটি টাকা ও ব্যায় হবে না। এসব নিম্নমানের মরা পাথর বালু দিয়ে সড়কের কাজ করলে। এসব মৃত পাথর ২৫-৩০ টাকা ফোটে ক্রয়-বিক্রয় হয়ে থাকে। কাজ করার আগেই রাস্তা ভেঙে যাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে বলে দাবি স্থানীয়দের।
সরেজমিনে উপস্থিত হয়ে মান্নার গাও ইউনিয়নের ইউপি চেয়ারম্যান মো. ইজ্জত আলী বলেন, এসব নিম্নমানের পাথর বালু দিয়ে কোন মতেই রাস্তার সংস্কার কাজ করা সম্ভব নয়। তারপরও যদি এসব পাথর দিয়ে রাস্তার কাজ করা হয় ঠিকাদার প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে আমরা কঠোর আন্দোলনে যাবো।
ছাত্রলীগ নেতা নুর হোসেন বলেন,, এসব টিকাদার প্রতিষ্ঠানের কারণে মাননীয় প্রধান মন্ত্রীর উন্নয়ন কাজ বাধাগ্রস্ত হচ্ছে। আমরা চাই টেকসই পাথর বালু দিয়ে রাস্তার কাজ করা হউক।
মান্নার গাও ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক আনোয়ার হোসেন বলেন, এসব নিম্নমানের পাথর বালু দিয়ে সড়কের সংস্কার কাজ এলাকাবাসী চায় না। তাই ঠিকাদার প্রতিষ্ঠান দ্রুত সময়ের মধ্যে এসব নিম্নমানের পাথর বালু সরিয়ে টেকসই পাথর বালু নিয়ে আসার জন্য। তানা হলে এলাকাবাসী ঠিকাদার প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে আন্দোলনের ডাক দিবে। এবং এসব নিম্নমানের পাথর বালু দিয়ে সড়কের কাজ করতে দেওয়া হবে না।
ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের সাইড ম্যানাজার আব্দুস শহীদ বলেন, নিম্নমানের পাথর বালু দিয়ে রাস্তার ব্লকের কাজ করলে সমস্যা হবে না।
সুনামগঞ্জ সড়ক ও জনপথ বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলীর নিকট নিম্নমানের পাথর বালু উত্তোলন প্রসঙে জানতে চাওয়া হলে তিনি বলেন, পাথর বালু দেখে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেওয়া হবে।