ঢাকা ১০:৩৬ অপরাহ্ন, সোমবার, ২২ এপ্রিল ২০২৪, ৯ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

হিলিতে গলায় ফাঁস দিয়ে ১০ ম শ্রেণীর শিক্ষার্থীর আত্মহত্যা

নিউজ ডেস্ক
  • আপডেট সময় : ০৮:১৯:০৬ অপরাহ্ন, রবিবার, ১৩ অগাস্ট ২০২৩
  • / ১৩৪০ বার পড়া হয়েছে

মোঃ রাকিব হাসান ডালিম, হাকিমপুর (হিলি) প্রতিনিধি:

দিনাজপুরের হিলিতে প্রিয়ন্তী পাল নামক ১০ম শ্রেণীর এক স্কুল ছাত্রী নিজ শয়ন কক্ষে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছে। শনিবার (১২ আগষ্ট) রাতে পৌর শহরের চন্ডিপুর এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। সে চন্ডিপুর মহল্লার অনিল পালের কন্যা ও বাংলাহিলি পাইলট স্কুল অ্যান্ড কলেজের ১০ম শ্রেণীর শিক্ষার্থী।
পুলিশ ও পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, শনিবার সন্ধ্যায় প্রিয়ন্তী ও তার এক ছোট ভাই পার্শ্ববর্তী এক গৃহশিক্ষকের নিকট প্রাইভেট পড়া শেষে বাড়ি ফিরে এসে রাতের খাবার শেষে নিজ ঘরে ঘুমিয়ে পড়ে। সকালে তার কোন সাড়া শব্দ না পেয়ে পরিবারের সদস্যরা তার শয়ন ঘরের দরজা ভাঙলে ঘরের বর্গার সাথে গলায় ওড়না পেচিয়ে ঝুলন্ত লাশ দেখতে পায়। এরপর পুলিশকে খবর দিলে লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য দিনাজপুর আব্দুর রহিম মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করেন।

হাকিমপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আবু সায়েম মিয়া জানান, সুরতহাল রিপোর্টে আত্মহত্যার আলামত মিলেছে। তবে আত্মহত্যার পূর্বে সে একটি সুইসাইড নোট লিখে গেছে। তার ব্যবহৃত মোবাইল ফোনটি উদ্ধার করা হলেও সেটি লক থাকায় তাৎক্ষণিক কোন তথ্য উদঘাটন করা যায়নি। পরবর্তীতে ফোনের সুত্র ধরে রহস্য উদঘাটন করা সম্ভব হবে।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

হিলিতে গলায় ফাঁস দিয়ে ১০ ম শ্রেণীর শিক্ষার্থীর আত্মহত্যা

আপডেট সময় : ০৮:১৯:০৬ অপরাহ্ন, রবিবার, ১৩ অগাস্ট ২০২৩

মোঃ রাকিব হাসান ডালিম, হাকিমপুর (হিলি) প্রতিনিধি:

দিনাজপুরের হিলিতে প্রিয়ন্তী পাল নামক ১০ম শ্রেণীর এক স্কুল ছাত্রী নিজ শয়ন কক্ষে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছে। শনিবার (১২ আগষ্ট) রাতে পৌর শহরের চন্ডিপুর এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। সে চন্ডিপুর মহল্লার অনিল পালের কন্যা ও বাংলাহিলি পাইলট স্কুল অ্যান্ড কলেজের ১০ম শ্রেণীর শিক্ষার্থী।
পুলিশ ও পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, শনিবার সন্ধ্যায় প্রিয়ন্তী ও তার এক ছোট ভাই পার্শ্ববর্তী এক গৃহশিক্ষকের নিকট প্রাইভেট পড়া শেষে বাড়ি ফিরে এসে রাতের খাবার শেষে নিজ ঘরে ঘুমিয়ে পড়ে। সকালে তার কোন সাড়া শব্দ না পেয়ে পরিবারের সদস্যরা তার শয়ন ঘরের দরজা ভাঙলে ঘরের বর্গার সাথে গলায় ওড়না পেচিয়ে ঝুলন্ত লাশ দেখতে পায়। এরপর পুলিশকে খবর দিলে লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য দিনাজপুর আব্দুর রহিম মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করেন।

হাকিমপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আবু সায়েম মিয়া জানান, সুরতহাল রিপোর্টে আত্মহত্যার আলামত মিলেছে। তবে আত্মহত্যার পূর্বে সে একটি সুইসাইড নোট লিখে গেছে। তার ব্যবহৃত মোবাইল ফোনটি উদ্ধার করা হলেও সেটি লক থাকায় তাৎক্ষণিক কোন তথ্য উদঘাটন করা যায়নি। পরবর্তীতে ফোনের সুত্র ধরে রহস্য উদঘাটন করা সম্ভব হবে।