ঢাকা ০৫:২৪ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ১৩ এপ্রিল ২০২৪, ২৯ চৈত্র ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

হিলিতে পেঁয়াজের ঝাঁজ কমলেও ও দুই দিনের ব্যবধানে কাঁচা মরিচের ঝাল বেড়েছে

নিউজ ডেস্ক
  • আপডেট সময় : ১০:১৮:৪৮ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২০ জুন ২০২৩
  • / ৩৬০ বার পড়া হয়েছে

মোঃ রাকিব হাসান ডালিম, হাকিমপুর (হিলি ) প্রতিনিধি:

পেঁয়াজ আমদানির বৃদ্ধি ও কাঁচা মরিচ সরবরাহ কমে যাওয়ায় দিনাজপুরের হিলিতে ভারতীয় পেঁয়াজ কেজিতে নামলো ২৮ থেকে ২৬ টাকা। দুই দিনের ব্যবধানে কাঁচা মরিচের দাম বৃদ্ধি পেয়েছে।

হিলি বাজার ঘুরে দেখা গেছে,গত রোববার খুচরা বাজারে ৮০ টাকা কেজি বিক্রি হলেও দুই দিন থেকে সেই মরিচ ১২০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে। কাঁচা মরিচ কেজিতে বেড়েছে ৪০ টাকা। এদিকে চলতি সপ্তাহ জুড়ে ভারতীয় পেঁয়াজ ২৮ থেকে ২৬ টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে।
পেঁয়াজ ব্যবসায়ীর জানান,আমদানি বৃদ্ধি পাওয়ায় দাম কমতে শুরু করছে।আমদানির পর থেকে ৫০ থেকে ৬০ টাকার পেঁয়াজ এখন বিক্রয় হচ্ছে ২৮ থেকে ২৬ টাকা কেজি দরে। ভারতীয় পেঁয়াজের কারণে দেশীয় পেঁয়াজের চাহিদা কমেছে। বাজারে পেঁয়াজ সরবরাহ স্বাভাবিক হয়ে আসছে। আজ মঙ্গলবার একটু খারাপ ধরনের ইন্দু পেঁয়াজ ২৬ টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে আর ভালো মানের নাসিক পেঁয়াজ ২৮ টাকা কেজি দরে বিক্রয় হচ্ছে। তবে কয়েক দিনের মধ্যে ২০ থেকে ২২ টাকা কেজিতে নামে আসবে পেঁয়াজের দাম।
অপরদিকে কাঁচা মরিচ বিক্রেতা বিপ্লব শেখ জানান,কাঁচা পণ্য সকালে বাড়ে,বিকেলে কমে। আমরা বেশি দামে কিনলেই বেশি বিক্রি করি।আবার কম দামে কিনলে কম দামেই বিক্রি করে থাকি। সরবরাহ বেশি থাকলে দাম কিছুটা কম হয়। দুই আগে কাঁচা মরিচ ৮০ টাকা কেজিতে দরে বিক্রয় হয়েছে। আজ মঙ্গলবার সেই কাঁচা মরিচ ১২০ টাকা কেজি দরে বিক্রয় করছি। তবে সরবরাহ বৃদ্ধি পেলে দাম আরও কমে আসবে।
তিনি আরও বলেন,বগুড়া-পঞ্চগড়, ডোমার, নীলফামারীসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে কাঁচা মরিচের আবাদ বাড়লেও বৃষ্টির কারণে সরবরাহ কম গেছে।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

হিলিতে পেঁয়াজের ঝাঁজ কমলেও ও দুই দিনের ব্যবধানে কাঁচা মরিচের ঝাল বেড়েছে

আপডেট সময় : ১০:১৮:৪৮ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২০ জুন ২০২৩

মোঃ রাকিব হাসান ডালিম, হাকিমপুর (হিলি ) প্রতিনিধি:

পেঁয়াজ আমদানির বৃদ্ধি ও কাঁচা মরিচ সরবরাহ কমে যাওয়ায় দিনাজপুরের হিলিতে ভারতীয় পেঁয়াজ কেজিতে নামলো ২৮ থেকে ২৬ টাকা। দুই দিনের ব্যবধানে কাঁচা মরিচের দাম বৃদ্ধি পেয়েছে।

হিলি বাজার ঘুরে দেখা গেছে,গত রোববার খুচরা বাজারে ৮০ টাকা কেজি বিক্রি হলেও দুই দিন থেকে সেই মরিচ ১২০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে। কাঁচা মরিচ কেজিতে বেড়েছে ৪০ টাকা। এদিকে চলতি সপ্তাহ জুড়ে ভারতীয় পেঁয়াজ ২৮ থেকে ২৬ টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে।
পেঁয়াজ ব্যবসায়ীর জানান,আমদানি বৃদ্ধি পাওয়ায় দাম কমতে শুরু করছে।আমদানির পর থেকে ৫০ থেকে ৬০ টাকার পেঁয়াজ এখন বিক্রয় হচ্ছে ২৮ থেকে ২৬ টাকা কেজি দরে। ভারতীয় পেঁয়াজের কারণে দেশীয় পেঁয়াজের চাহিদা কমেছে। বাজারে পেঁয়াজ সরবরাহ স্বাভাবিক হয়ে আসছে। আজ মঙ্গলবার একটু খারাপ ধরনের ইন্দু পেঁয়াজ ২৬ টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে আর ভালো মানের নাসিক পেঁয়াজ ২৮ টাকা কেজি দরে বিক্রয় হচ্ছে। তবে কয়েক দিনের মধ্যে ২০ থেকে ২২ টাকা কেজিতে নামে আসবে পেঁয়াজের দাম।
অপরদিকে কাঁচা মরিচ বিক্রেতা বিপ্লব শেখ জানান,কাঁচা পণ্য সকালে বাড়ে,বিকেলে কমে। আমরা বেশি দামে কিনলেই বেশি বিক্রি করি।আবার কম দামে কিনলে কম দামেই বিক্রি করে থাকি। সরবরাহ বেশি থাকলে দাম কিছুটা কম হয়। দুই আগে কাঁচা মরিচ ৮০ টাকা কেজিতে দরে বিক্রয় হয়েছে। আজ মঙ্গলবার সেই কাঁচা মরিচ ১২০ টাকা কেজি দরে বিক্রয় করছি। তবে সরবরাহ বৃদ্ধি পেলে দাম আরও কমে আসবে।
তিনি আরও বলেন,বগুড়া-পঞ্চগড়, ডোমার, নীলফামারীসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে কাঁচা মরিচের আবাদ বাড়লেও বৃষ্টির কারণে সরবরাহ কম গেছে।