ঢাকা ১২:৫৯ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ২৪ মে ২০২৪, ৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::
হিলিতে আওয়ামী মৎস্যজীবী লীগের ২১ তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উদযাপন বিরামপুরে ধান, চাল ও গম ক্রয়ের শুভ উদ্বোধন করেন শিবলী সাদিক এমপি হোটেলে খেতে গিয়ে দায়িত্ব হারালেন প্রিজাইডিং কর্মকর্তা পাঁচবিবিতে খরায় লিচুর ফলন হ্রাস,বাগান মালিকের মাথায় হাত পাঁচবিবিতে ট্রাইকো কম্পোস্ট সার বাজারজাতকরণে মাঠ দিবস অনুষ্ঠিত আত্মসমর্পণের পর কারাগারে বিএনপি নেতা ইশরাক দুর্ঘটনার কবলে ইরানের প্রেসিডেন্টকে বহনকারী হেলিকপ্টার অবৈধ জুস তৈরির কারখানায় অভিযান, ১০ লাখ টাকা জরিমানা দেশ এখন মগের মুল্লুকে পরিণত হয়েছে : মির্জা ফখরুল ‘ভারত-চীনকে যুক্ত করতে পারলেই রোহিঙ্গা সংকট সমাধান সম্ভব’

হিলিতে বেগুন কেজিতে বেড়েছে ৩০ টাকা

নিউজ ডেস্ক
  • আপডেট সময় : ১০:১২:৩২ অপরাহ্ন, রবিবার, ২১ জানুয়ারী ২০২৪
  • / ৩৫১ বার পড়া হয়েছে

মোঃ রাকিব হাসান ডালিম, হাকিমপুর (দিনাজপুর) প্রতিনিধিঃ

এক সপ্তাহের ব্যবধানে দিনজপুরের হিলিতে বেগুনের দাম বেড়েছে কেজিতে ২০ থেকে ৩০ টাকা। আর পাইকারী বাজারে আলুর দাম কেজিতে ১৫ টাকা কমেছে। এক সপ্তাহ আগে ৪০ টাকা কেজির বেগুন আজ বিক্রি হচ্ছে ৬০ থেকে ৭০ টাকায়। বিক্রেতা বলছেন,ঘণ কুয়াশা আর ঠান্ডার কারণে কৃষকেরা ক্ষেত থেকে বেগুন তুলতে পারছেনা। তাই মোকামে বেগুন পাওয়াই যাচ্ছে না। পাঁচবিবি ও বিরামপুর মোকামে বেগুনের সরবরাহ কমে গেছে। তাই দাম বেড়েছে।
রোববার দুপুরে হিলি সবজির বাজারে ঘুরে দেখা গেছে, গত সপ্তাহে আগে বেগুন ৩০ থেকে ৪০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হয়েছে। আজ সেই বেগুন ৬০ থেকে ৭০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। গত সপ্তাহে শিম ৪০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হলেও আজ ৬০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে। ফুলকপি ৩০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হলেও আজ তা ৪০ টাকা কেজি দরে, করলা ৬০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হলেও আজ তা ৮০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে, টমেটো ৩০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হলেও আজ তা ৫০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে, মুলা ১০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হলেও আজ তা ১৫ টাকা কেজি দরে, পাতা পেঁয়াজ ৪০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হলেও তা আজ ৫০ টাকা কেজি দরে,আর দেশী পেঁয়াজ ৬০ থেকে ৬৫ টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে। এদিকে পাইকারী বাজারে কেরেস আলু ২৫ টাকা কেজি দরে,আর গুটি লাল আলু ৩৫ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। আর খুচরা বাজারে আলু বিক্রি হচ্ছে ৩৭ থেকে ৪০ টাকায়। সবধরণের সবজির দামও কেজিতে ১০ থেকে ২০ টাকা বেড়েছে।
হিলি বাজারে বেগুন কিনতে আসা মোহাম্মদ আলী বলেন, গত সপ্তাহে প্রতিকেজি বেগুন কিনেছি ৪০ টাকা কেজি দরে। আর আজ প্রতিকেজি বেগুন কিনতে হচ্ছে ৬০ থেকে ৭০ টাকা কেজি দরে। মাত্র এক সপ্তাহের ব্যবধান বেগুনের দাম কেজি বেড়েছে ২০ থেকে ৩০ টাকা।
আরেক ক্রেতা আবু সাইদ বলেন, এখন তো বেগুনের ভরা মৌসুম তার পরেও বেগুনের দাম বাড়ার কারণ খুঁজে পাচ্ছি না। এক কেজি বেগুন কিনলাম ৭০ টাকায়।
হিলি বাজারের সবজি বিক্রেতা তারেক রহমান জানান,আজ আমি বিরামপুর পাইকারী বাজার থেকে বেগুন কিনেছি। বিরামপুর পাইকারী বাজারেই বেগুন সরবরাহ কমে গেছে। গতকাল শনিবার বিরামপুর হাটের পাইকারী মোকামেই প্রতিমণ ২ হাজার ৪০০ টাকা মণ হলে কিনতে পড়ছে ৬০ টাকা কেজি। তারপরও বেগুন নেই। তাই আমরা যেটুকু বেগুন পাচ্ছি ৬০ টাকা কেজি দরে কিনে ৭০ টাকা দরে বিক্রি করছি। মোকামে সরবরাহ বেড়ে গেলে দাম হয়তো কমে আসবে। তখন স্থানীয় বাজারেও দাম আগের মতোই কমে আসবে।
হিলি বাজারের পাইকারী আলু বিক্রেতা বলেন,আজ পাইকারী আলু বিক্রি করছি কেরেস ২৫ থেকে ২৬ টাকায় আর গুটি লাল আলু ৩৫ টাকা কেজি দরে বিক্রি করছি। গত এক সপ্তাহের তুলুনায় আজ রোববার কেজিতে ১৫ টাকা আলুর দাম কমছে। আর কয়েক পর দাম আরও কমে আসবে।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

হিলিতে বেগুন কেজিতে বেড়েছে ৩০ টাকা

আপডেট সময় : ১০:১২:৩২ অপরাহ্ন, রবিবার, ২১ জানুয়ারী ২০২৪

মোঃ রাকিব হাসান ডালিম, হাকিমপুর (দিনাজপুর) প্রতিনিধিঃ

এক সপ্তাহের ব্যবধানে দিনজপুরের হিলিতে বেগুনের দাম বেড়েছে কেজিতে ২০ থেকে ৩০ টাকা। আর পাইকারী বাজারে আলুর দাম কেজিতে ১৫ টাকা কমেছে। এক সপ্তাহ আগে ৪০ টাকা কেজির বেগুন আজ বিক্রি হচ্ছে ৬০ থেকে ৭০ টাকায়। বিক্রেতা বলছেন,ঘণ কুয়াশা আর ঠান্ডার কারণে কৃষকেরা ক্ষেত থেকে বেগুন তুলতে পারছেনা। তাই মোকামে বেগুন পাওয়াই যাচ্ছে না। পাঁচবিবি ও বিরামপুর মোকামে বেগুনের সরবরাহ কমে গেছে। তাই দাম বেড়েছে।
রোববার দুপুরে হিলি সবজির বাজারে ঘুরে দেখা গেছে, গত সপ্তাহে আগে বেগুন ৩০ থেকে ৪০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হয়েছে। আজ সেই বেগুন ৬০ থেকে ৭০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। গত সপ্তাহে শিম ৪০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হলেও আজ ৬০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে। ফুলকপি ৩০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হলেও আজ তা ৪০ টাকা কেজি দরে, করলা ৬০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হলেও আজ তা ৮০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে, টমেটো ৩০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হলেও আজ তা ৫০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে, মুলা ১০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হলেও আজ তা ১৫ টাকা কেজি দরে, পাতা পেঁয়াজ ৪০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হলেও তা আজ ৫০ টাকা কেজি দরে,আর দেশী পেঁয়াজ ৬০ থেকে ৬৫ টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে। এদিকে পাইকারী বাজারে কেরেস আলু ২৫ টাকা কেজি দরে,আর গুটি লাল আলু ৩৫ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। আর খুচরা বাজারে আলু বিক্রি হচ্ছে ৩৭ থেকে ৪০ টাকায়। সবধরণের সবজির দামও কেজিতে ১০ থেকে ২০ টাকা বেড়েছে।
হিলি বাজারে বেগুন কিনতে আসা মোহাম্মদ আলী বলেন, গত সপ্তাহে প্রতিকেজি বেগুন কিনেছি ৪০ টাকা কেজি দরে। আর আজ প্রতিকেজি বেগুন কিনতে হচ্ছে ৬০ থেকে ৭০ টাকা কেজি দরে। মাত্র এক সপ্তাহের ব্যবধান বেগুনের দাম কেজি বেড়েছে ২০ থেকে ৩০ টাকা।
আরেক ক্রেতা আবু সাইদ বলেন, এখন তো বেগুনের ভরা মৌসুম তার পরেও বেগুনের দাম বাড়ার কারণ খুঁজে পাচ্ছি না। এক কেজি বেগুন কিনলাম ৭০ টাকায়।
হিলি বাজারের সবজি বিক্রেতা তারেক রহমান জানান,আজ আমি বিরামপুর পাইকারী বাজার থেকে বেগুন কিনেছি। বিরামপুর পাইকারী বাজারেই বেগুন সরবরাহ কমে গেছে। গতকাল শনিবার বিরামপুর হাটের পাইকারী মোকামেই প্রতিমণ ২ হাজার ৪০০ টাকা মণ হলে কিনতে পড়ছে ৬০ টাকা কেজি। তারপরও বেগুন নেই। তাই আমরা যেটুকু বেগুন পাচ্ছি ৬০ টাকা কেজি দরে কিনে ৭০ টাকা দরে বিক্রি করছি। মোকামে সরবরাহ বেড়ে গেলে দাম হয়তো কমে আসবে। তখন স্থানীয় বাজারেও দাম আগের মতোই কমে আসবে।
হিলি বাজারের পাইকারী আলু বিক্রেতা বলেন,আজ পাইকারী আলু বিক্রি করছি কেরেস ২৫ থেকে ২৬ টাকায় আর গুটি লাল আলু ৩৫ টাকা কেজি দরে বিক্রি করছি। গত এক সপ্তাহের তুলুনায় আজ রোববার কেজিতে ১৫ টাকা আলুর দাম কমছে। আর কয়েক পর দাম আরও কমে আসবে।