ঢাকা ০২:২২ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১৪ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::
হিলি বন্দরে আমদানি-রপ্তানি বন্ধ বিরামপুর উপজেলায় ১০৩ বছরের বৃদ্ধা স্মার্ট জাতীয় পরিচয়পত্র নিলেন নাতি বৌয়ের কাঁধে ভর করে কিশোর কিশোরীর উজ্জ্বল ভবিষ্যত ও আলোকিত জীবন হিলিতে চেয়ারম্যান কাপ ফুটবল টুর্ণামেন্ট এর উদ্বোধন জয়পুরহাটে পুলিশ সুপার ম্যারাথন ও পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠিত পাঁচবিবিতে কোকতারা আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয়ে জানালার গ্রিল ভেঙ্গে দুধর্ষ চুরি ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় ট্রাক্টর দূর্ঘটনায় নিহত ২ পাঁচবিবিতে বুড়াবুড়ির মাজারে ২৫তম বাৎসরিক ওয়াজ মাহফিলের প্রস্তুতি সভা হিলি সীমান্তে দুই বাংলার আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালিত হরিপুরে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালিত

ফাঁদ পেতে মুক্তিপণ আদায়কারী চক্রের দুই নারীসহ মূলহোতা আটক

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০৭:৩১:৫২ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ৩০ মে ২০২৩
  • / ৩২৩ বার পড়া হয়েছে

জিল্লুর রহমান সাগর, মাগুরা প্রতিনিধি:

মাগুরায় নারী দিয়ে ফাঁদ পেতে অশ্লীল ভিডিও ধারণসহ জিম্মি করে মুক্তিপণ আদায়কালে দুই নারীসহ চক্রের মূলহোতাকে আটক করেছে মাগুরা জেলা পুলিশ। সোমবার বিকেলে মাগুরা পুলিশ সুপারের সম্মেলন কক্ষে আয়োজিত এক সাংবাদিক সম্মেলনে এ তথ্য জানান অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোঃ কলীমউল্লা।
প্রেস ব্রিফিংয়ে সাংবাদিকদের তিনি জানান, সদরের ডেফুলিয়া গ্রামের শামসু বিশ্বাস (৩৬) নামের এক ব্যক্তিকে নতুন বাজার এলাকা হতে অপহরণের পর ১ লক্ষ টাকা মুক্তিপণ দাবি করে অপহরণকারী দল। দাবিকৃত টাকা না পেলে নারী দিয়ে অশ্লীল ভিডিও বানিয়ে ইন্টারনেটে ছেড়ে দেয়াসহ ভিকটিমকে মেরে গুম করে ফেলার হুমকি প্রদান করেছে বলে অভিযোগ পান তারা।
এই অভিযোগের ভিত্তিতে ভিকটিম উদ্ধারে সাইবার টিম ও ডিবি পুলিশের একটি দল রাতভর প্রযুক্তির সহায়তায় ও স্থানীয় গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে অভিযান পরিচালনা করে মাগুরার নিজ নান্দুয়ালী এলাকা হতে ওই চক্রের মূলহোতা শাহীনসহ তার সহযোগী দুই নারীকে আটক করে ভিকটিম শামসু বিশ্বাস (৩৬) কে উদ্ধার করে। জিজ্ঞাসাবাদে আসামিরা দীর্ঘদিন ধরে এ কাজের সঙ্গে যুক্ত বলে স্বীকার করে।
আটককৃতরা হলো নিজনান্দুয়ালী এলাকার মৃত সালেক শেখের ছেলে শাহিনুর শেখ (৪২) কুদ্দুসের স্ত্রী জুলেখা (৩৫) ও জাকির ওরফে অপুর স্ত্রী নদী (৩৫)।
তারা জানায়, চক্রের অন্যান্য সদস্যদের সহায়তায় নদীর মোবাইল নাম্বার থেকে টার্গেট ব্যক্তিদেরকে ফোন করে সম্পর্ক গড়ে তোলে, একপর্যায়ে দেখা করার কথা বলে টার্গেট ব্যক্তিকে মাগুরায় নতুন বাজার এলাকায় জুলেখার বাসায় ডেকে আনা হয়। সেখানে আগে থেকেই শাহিন ওৎপেতে থাকে, ভিকটিমকে রুমে নিয়েই নগ্ন অবস্থায় চক্রের নারী সদস্যদের সাথে আপত্তিকর অবস্থা তৈরি করলে শাহিন তার নিজ মোবাইল দিয়ে ভিডিও করে। তারপর ভিকটিমের ফোন থেকেই তার স্বজনদের কাছে ফোন করে মুক্তিপণ দাবি করতো তারা। গ্রেফতারকৃত আসামী শাহিনের বিরুদ্ধে অস্ত্র, অপহরণ, দু’টি হত্যাসহ একাধিক মাদক ও চুরির মামলা রয়েছে।
এ ব্যাপারে মাগুরা সদর থানায় একটি মামলা দায়ের করে।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

আপলোডকারীর তথ্য

ফাঁদ পেতে মুক্তিপণ আদায়কারী চক্রের দুই নারীসহ মূলহোতা আটক

আপডেট সময় : ০৭:৩১:৫২ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ৩০ মে ২০২৩

জিল্লুর রহমান সাগর, মাগুরা প্রতিনিধি:

মাগুরায় নারী দিয়ে ফাঁদ পেতে অশ্লীল ভিডিও ধারণসহ জিম্মি করে মুক্তিপণ আদায়কালে দুই নারীসহ চক্রের মূলহোতাকে আটক করেছে মাগুরা জেলা পুলিশ। সোমবার বিকেলে মাগুরা পুলিশ সুপারের সম্মেলন কক্ষে আয়োজিত এক সাংবাদিক সম্মেলনে এ তথ্য জানান অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোঃ কলীমউল্লা।
প্রেস ব্রিফিংয়ে সাংবাদিকদের তিনি জানান, সদরের ডেফুলিয়া গ্রামের শামসু বিশ্বাস (৩৬) নামের এক ব্যক্তিকে নতুন বাজার এলাকা হতে অপহরণের পর ১ লক্ষ টাকা মুক্তিপণ দাবি করে অপহরণকারী দল। দাবিকৃত টাকা না পেলে নারী দিয়ে অশ্লীল ভিডিও বানিয়ে ইন্টারনেটে ছেড়ে দেয়াসহ ভিকটিমকে মেরে গুম করে ফেলার হুমকি প্রদান করেছে বলে অভিযোগ পান তারা।
এই অভিযোগের ভিত্তিতে ভিকটিম উদ্ধারে সাইবার টিম ও ডিবি পুলিশের একটি দল রাতভর প্রযুক্তির সহায়তায় ও স্থানীয় গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে অভিযান পরিচালনা করে মাগুরার নিজ নান্দুয়ালী এলাকা হতে ওই চক্রের মূলহোতা শাহীনসহ তার সহযোগী দুই নারীকে আটক করে ভিকটিম শামসু বিশ্বাস (৩৬) কে উদ্ধার করে। জিজ্ঞাসাবাদে আসামিরা দীর্ঘদিন ধরে এ কাজের সঙ্গে যুক্ত বলে স্বীকার করে।
আটককৃতরা হলো নিজনান্দুয়ালী এলাকার মৃত সালেক শেখের ছেলে শাহিনুর শেখ (৪২) কুদ্দুসের স্ত্রী জুলেখা (৩৫) ও জাকির ওরফে অপুর স্ত্রী নদী (৩৫)।
তারা জানায়, চক্রের অন্যান্য সদস্যদের সহায়তায় নদীর মোবাইল নাম্বার থেকে টার্গেট ব্যক্তিদেরকে ফোন করে সম্পর্ক গড়ে তোলে, একপর্যায়ে দেখা করার কথা বলে টার্গেট ব্যক্তিকে মাগুরায় নতুন বাজার এলাকায় জুলেখার বাসায় ডেকে আনা হয়। সেখানে আগে থেকেই শাহিন ওৎপেতে থাকে, ভিকটিমকে রুমে নিয়েই নগ্ন অবস্থায় চক্রের নারী সদস্যদের সাথে আপত্তিকর অবস্থা তৈরি করলে শাহিন তার নিজ মোবাইল দিয়ে ভিডিও করে। তারপর ভিকটিমের ফোন থেকেই তার স্বজনদের কাছে ফোন করে মুক্তিপণ দাবি করতো তারা। গ্রেফতারকৃত আসামী শাহিনের বিরুদ্ধে অস্ত্র, অপহরণ, দু’টি হত্যাসহ একাধিক মাদক ও চুরির মামলা রয়েছে।
এ ব্যাপারে মাগুরা সদর থানায় একটি মামলা দায়ের করে।