ঢাকা ১০:০৯ অপরাহ্ন, সোমবার, ২২ এপ্রিল ২০২৪, ৯ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

মাগুরার শ্রীপুরে মায়ের প্রতি অভিমান করে স্কুল ছাত্রের আত্মহত্যা

নিউজ ডেস্ক
  • আপডেট সময় : ০২:৩৬:২৪ অপরাহ্ন, সোমবার, ১৫ মে ২০২৩
  • / ৯৬৭ বার পড়া হয়েছে

জিল্লুর রহমান সাগর
মাগুরা প্রতিনিধি

মাগুরার শ্রীপুর উপজেলার জোকা গ্রামে ধুমপান করার অপরাধে মায়ের বকুনিতে আত্মহত্যা করেছে  সোহাগ মোল্যা (১২) নামে এক স্কুল ছাত্র।

নিহত স্কুল ছাত্র ঔ গ্রামের শেরজান মোল্লার পুত্র ও খামারপাড়া মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ষষ্ঠ শ্রেণির ছাত্র ।
নিহতের মা সোহাগী বেগম জানান,তার সন্তান সোহাগ মোল্যা শিশুকাল থেকেই অদৃশ্য শক্তির আছড়ের ভাব ছিল। সে প্রায়ই পরিবারের লোকজনদের উপর রাগ করে বাড়ি বাইরে পালিয়ে থাকতো। ষষ্ঠ শ্রেণিতে লেখাপড়ার পাশাপাশি সে পরিবারের কিছু খুটিনাটি কাজকর্মও করতো। তার অভ্যাস ছিল বিকেল হলেই বাড়ির পাশে স্কুল মাঠে গিয়ে বন্ধুদের সাথে আড্ডা দেওয়া। বন্ধুদের সাথে আড্ডা দেওয়ার একপর্যায়ে সে দিনেদিনে ধুমপানে আসক্ত হয়ে পড়ে।

ধুমপানের বিষয়টি বন্ধুদের মাধ্যমে তার মা জানতে পেরে গত শুক্রবার রাতে  বাড়ি ফিরলে তার উপর একটু রাগারাগি করেন। পরদিন অর্থ্যাৎ শনিবার সকালে সে দেরি করে ঘুম থেকে ওঠায়  তাকে আবারও বকা দেন । বকুনির একপর্যায়ে  সকালের নাস্তা না খেয়েই বাড়ি থেকে নিরুদ্দেশ হয় সোহাগ ।

পরিবারের লোকজন দুইদিন ধরে ব্যাপক খুঁজাখুঁজির একপর্যায়ে রবিবার রাত আনুমানিক ১০টায় বাড়ির পার্শ্ববর্তী জোকা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পরিত্যক্ত ভবনের একটি কক্ষের আড়ার সাথে গলায় রশি বাঁধা মৃত ঝুলন্ত অবস্থায় দেখতে পায় তাকে।
পরে এলাকাবাসির সংবাদের ভিত্তিতে শ্রীপুর থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌছে রবিবার রাত অনুমান ২টার দিকে লাশটি উদ্ধার করে সোমবার সকালে ময়না তদন্তের জন্য মাগুরা মর্গে প্রেরণ করেন।
এবিষয়ে তদন্তকারী কর্মকর্তা এস আই মোশারফ হোসেন বলেন, ময়না তদন্ত রিপোর্ট ছাড়া মৃত্যুর আসল রহস্য বলা সম্ভব নয় ।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

আপলোডকারীর তথ্য

মাগুরার শ্রীপুরে মায়ের প্রতি অভিমান করে স্কুল ছাত্রের আত্মহত্যা

আপডেট সময় : ০২:৩৬:২৪ অপরাহ্ন, সোমবার, ১৫ মে ২০২৩

জিল্লুর রহমান সাগর
মাগুরা প্রতিনিধি

মাগুরার শ্রীপুর উপজেলার জোকা গ্রামে ধুমপান করার অপরাধে মায়ের বকুনিতে আত্মহত্যা করেছে  সোহাগ মোল্যা (১২) নামে এক স্কুল ছাত্র।

নিহত স্কুল ছাত্র ঔ গ্রামের শেরজান মোল্লার পুত্র ও খামারপাড়া মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ষষ্ঠ শ্রেণির ছাত্র ।
নিহতের মা সোহাগী বেগম জানান,তার সন্তান সোহাগ মোল্যা শিশুকাল থেকেই অদৃশ্য শক্তির আছড়ের ভাব ছিল। সে প্রায়ই পরিবারের লোকজনদের উপর রাগ করে বাড়ি বাইরে পালিয়ে থাকতো। ষষ্ঠ শ্রেণিতে লেখাপড়ার পাশাপাশি সে পরিবারের কিছু খুটিনাটি কাজকর্মও করতো। তার অভ্যাস ছিল বিকেল হলেই বাড়ির পাশে স্কুল মাঠে গিয়ে বন্ধুদের সাথে আড্ডা দেওয়া। বন্ধুদের সাথে আড্ডা দেওয়ার একপর্যায়ে সে দিনেদিনে ধুমপানে আসক্ত হয়ে পড়ে।

ধুমপানের বিষয়টি বন্ধুদের মাধ্যমে তার মা জানতে পেরে গত শুক্রবার রাতে  বাড়ি ফিরলে তার উপর একটু রাগারাগি করেন। পরদিন অর্থ্যাৎ শনিবার সকালে সে দেরি করে ঘুম থেকে ওঠায়  তাকে আবারও বকা দেন । বকুনির একপর্যায়ে  সকালের নাস্তা না খেয়েই বাড়ি থেকে নিরুদ্দেশ হয় সোহাগ ।

পরিবারের লোকজন দুইদিন ধরে ব্যাপক খুঁজাখুঁজির একপর্যায়ে রবিবার রাত আনুমানিক ১০টায় বাড়ির পার্শ্ববর্তী জোকা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পরিত্যক্ত ভবনের একটি কক্ষের আড়ার সাথে গলায় রশি বাঁধা মৃত ঝুলন্ত অবস্থায় দেখতে পায় তাকে।
পরে এলাকাবাসির সংবাদের ভিত্তিতে শ্রীপুর থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌছে রবিবার রাত অনুমান ২টার দিকে লাশটি উদ্ধার করে সোমবার সকালে ময়না তদন্তের জন্য মাগুরা মর্গে প্রেরণ করেন।
এবিষয়ে তদন্তকারী কর্মকর্তা এস আই মোশারফ হোসেন বলেন, ময়না তদন্ত রিপোর্ট ছাড়া মৃত্যুর আসল রহস্য বলা সম্ভব নয় ।